লৌহজংয়ে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় আওয়ামী লীগের ৪ চেয়ারম্যান

মুন্সীগঞ্জের লৌহজংয়ে ১০টি ইউনিয়নের মধ্যে ৪টি ইউনিয়নের চেয়ারম্যান প্রার্থীগন বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হতে যাচ্ছে। এর মধ্যে ৩জন নিবাচিত হতে যাচ্চেন তাঁদের কোন প্রতিদ্বন্দ্বি প্রার্থী না থাকায়। অপর একজনের দুই জন প্রতিদ্বন্দ্বি প্রার্থী থাকলেও যাচাই বাছাইয়ে এক জনের মনোনয়ন পত্র বাতিল ও অপরজন প্রত্যাহার পত্র জমা দেওয়ায় এখন বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতার পথ সুগম হয়েছে চার আওয়ামী লীগ মনোনীত চেয়ারম্যান প্রার্থীর। উপজেলা নির্বাচন অফিস এ তথ্য নিশ্চিত করেছে।

জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা ফয়সাল কাদের জানান, আগামী ২৩ এপ্রিল তৃতীয় ধাপে লৌহজং উপজেলা নির্বাচনে আওয়ামী লীগের চার প্রার্থী বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হতে যাচ্ছে। এদের মধ্যে কুমারভোগ ইউনিয়নের বর্তমান চেয়ারম্যান মো: লুৎফর রহমান তালুকদার, বৌলতলী ইউনিয়নের হাজী মো: মালেক শিকদার ও গাঁওদিয়া ইউনিয়নের হাজী মো: মিজানুর রহমান হাওলাদারের প্রতিদ্বন্দ্বি কোন প্রার্থী না থাকায় তাদের বিনা প্রতিদ্বন্দিতায় চেয়ারম্যান হওয়া নিশ্চিত হয়েছে। অপর প্রার্থী লৌহজং তেউটিয়া ইউনিয়নের হাজী মো: রফিকুল ইসলাম মোল্লার দুই জন প্রতিদ্বন্দ্বি প্রার্থী থাকলেও বিএনপি প্রার্থী হাজী মো: তোপাজ্জল হোসেন কনট্রাকটার মনোনয়ন পত্রে স্বাক্ষর না করায় তাঁর মনোনয়ন পত্র বাতিল হয়েছে। আপিল করার তিন দিন সময় থাকলেও তিনি তা করেননি। অপর স্বতন্ত্র প্রার্থী মো. শহিদুল ইসলাম মোল্লা শনিবার উপজেলা রিটানিং অফিসারের কাছে মনোনয়ন পত্র প্রত্যাহার চেয়ে আবেদন করেছেন। তাই লৌহজং-টেউটিয়াসহ ৪টি ইউনিয়নেই আওয়ামী লীগের প্রার্থীর চেয়ারম্যান হওয়া এখন সময়ের ব্যাপার মাত্র ।

জনকন্ঠ

Comments are closed.