‘সোনালি স্বপ্ন’ ঘরে তুলতে ব্যস্ত কৃষক

দুই বছর লোকসানের পর মুন্সীগঞ্জে এবার আলুর বাম্পার ফলন হয়েছে। কৃষকেরা সোনালি আলুতে খুঁজে পেয়েছেন সোনালি স্বপ্ন। শেষ সময়ে এই স্বপ্ন ঘরে তোলায় ব্যস্ত কৃষকেরা।

জমির পরিমাণ অনুযায়ী তিন থেকে চার জন জমি আগলা করতে লাঙ্গলের মতো কৃষি যন্ত্র ব্যবহার করছেন। অতি যত্নে সিলভারের সাদা পাত্রের মধ্যে আলু সংগ্রহ করছেন কৃষকেরা।

আলুর ফলন ও দাম ভালো হওয়ায় কৃষকের মুখে হাসি ফুটেছে। চাষিরা জানান, এ বছর গড় ফলন ভালো হয়েছে। প্রতি শতাংশে প্রায় সাড়ে তিন মণ আলুর ফলন হয়েছে। দিগন্ত জোড়া মাঠের চারদিকে আলুর সবুজ গাছ। সবুজ গাছ সরাতেই বেরিয়ে আসছে আলু।

সারিবদ্ধভাবে আলুর জমি আলগা করা কাজের দৃশ্য সত্যি নান্দনিক। গরু ও মহিষের কঠিন কাজ নিজেই করছেন কৃষকেরা। তবে, কৃষকের কাছে আলুর বাম্পার ফলনে পরিশ্রমও ম্লান।

জমি থেকে সংগ্রহ করা অালুগুলো বস্তাবন্দি করছেন চাষিরা। আলু সংগ্রহের সময় তাদের হাসিই প্রমাণ করে এবার বাম্পার ফলন হয়েছে।

মুন্সীগঞ্জের সিরাজদীখান উপজেলায় আলুর বাম্পার ফলন হলেও সংরক্ষণে হিমাগারের স্থান সংকুলান ও খরচ নিয়ে উদ্বিগ্ন কৃষক। হিমাগার ভাড়া নির্ধারণে সরকারের পক্ষ থেকে উদ্যোগ নেওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন তারা।

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর

Leave a Reply