আওয়ামী লীগ ও ছাত্রলীগ সাধারণ সম্পাদকসহ ১১ জন জেল হাজতে

মুন্সীগঞ্জের সিরাজদিখানের চাঞ্চল্যকর ছাত্রলীগ নেতা আসিফ হত্যা মামলায় কোলা ইউনিয়ন ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ ও ছাত্রলীগেরর সাধারণ সম্পাদকসহ ১১ জনকে জেল হাজতে পাঠিয়ে আদালত। বৃহস্পতিবার মুন্সীগঞ্জের ২নং আমলী আদালতের বিচারক সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মুক্তা রাণী মণ্ডল তাদেরকে জেল হাজতে প্রেরণের আদেশ দেন।

আসামিদের মধ্যে সিরাজদিখানের কোলা ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক ইয়ামীন, ইউনিযন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মো. রফিকুল ইসলাম ও নুরুল ইসলাম মেম্বার রয়েছেন।

সিরাজদিখান থানার ১৭(৪)১৬ নং মামলা সূত্রে জানাযায়, জেলার সিরাজদিখান উপজেলার কোলা ইউনিয়ন ছাত্রলীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাংবাদিকতা বিভাগের মেধাবী ছাত্র আসিফ হোসেনকে ১২ এপ্রিল রাত অনুমান সাড়ে ৮টার দিকে স্থানীয় রনী ও একই ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সম্পাদক ইয়ামীনের নেতৃত্বে একদল সন্ত্রাসী মারধর করে মারাত্মক আহত করে। পরে পুলিশের সাহায্যে মিথ্যা মামলায় আটক দেখিয়ে অসুস্থ অবস্থায় জেল হাজতে পাঠায়।

উন্নত চিকিৎসার অভাবে দীর্ঘ ৬ দিন মৃত্যুর সংঙ্গে পাঞ্জা লড়ে ১৭ এপ্রিল মুন্সীগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালে মারা যায়। ২ দিন পর ১৯ এপ্রিল আসিফের বাবা হাবিবুর রহমান বাদী হয়ে ছাত্রলীগ নেতা রনী, ইয়ামীন, রফিকুল ইসলামসহ ১৩ জনের নাম দিয়ে একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। এদের মধ্যে রনী ঢাকা থেকে আটক হয়ে দীর্ঘ দিন হাজত খেটে জামিনে মুক্তি পায়। একজন পলাতক রয়েছেন এবং বাকি ১১ জন মহামান্য হাইকোর্ট থেকে অন্তবর্তীকালীন জামিনে থেকে হাইকোর্টের নির্দেশে নিম্ন আদালতে আত্মসমর্পন করে জামিনের আবেদন করলে আদালত তাদের জামিন না মঞ্জুর করে কারাগারে প্রেরণ করেন।

নিউজ৬৯

Leave a Reply