জঙ্গী দমনে সরকারের পদক্ষেপ প্রসংসনীয় : নারায়ণ চন্দ্র চন্দ

মৎস্য ও প্রাণি সম্পদ মন্ত্রণালয় প্রতিমন্ত্রী নারায়ণ চন্দ্র চন্দ এমপি বলেছেন, সাম্প্রদায়িক সম্পীতির এক উত্তম নিদর্শন বাংলাদেশ। এই দেশে সকল ধর্মের মানুষ কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে শান্তিপূর্ণভাবে বসবাস করছে। হিন্দু ও মুসলমানের মধ্যে কোন ভেদাভেদ নেই, জাতিগত দিক থেকে সবাই এক। সব ধর্মীয় অনুষ্ঠানে একে অপরের অনুষ্ঠানে স্বঃতর্স্ফতভাবে অংশ নিচ্ছে। ধর্মীয় উৎসব গুলো বাঙালি উৎসবে রূপ নিচ্ছে। জঙ্গী দমনে এই সরকারের পদক্ষেপ প্রসংসনীয়। জঙ্গী কোন ধর্মের হতে পারে না। তাই সকলে মিলে জঙ্গীদের কঠোর হচ্ছে দমন করতে হবে।

শনিবার দুপুরে টঙ্গীবাড়ী উপজেলার দিঘীরপাড় মূলচর বাবুর বাড়ী সার্বজনীন কাঁলি ও দূর্গা মন্দিরের উদ্বোধন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির ভাষণে তিনি এসব কথা বলেন। এ সময় বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন স্থানীয় সংসদ সদস্য অধ্যাপিকা সাগুফতা ইয়াসমিন এমিলি।

মন্দিও প্রাঙ্গনের মাঠে এই উপলেক্ষ আলোচনা সভায় দিঘীরপাড় ইউপি চেয়ারম্যান আরিফুল ইসলাম হালদারের সভাপতিত্বে আনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য রাখেন জেলা আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক শেখ লুৎফর রহমান, টঙ্গীবাড়ী উপজেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি জগলুল হালদার ভূতু, উপজেলা চেয়ারম্যান ইঞ্জিনিয়ার কাজী ওয়াহীদ, উপজেলা নির্বাহী অফিসার শহীদুল হক পাটোয়ারী, উপজেলা মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান এমিলি পারভীন, উপজেলা আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক হাফিজ আল আসাদ বারেক ও জেলা আওয়ামী লীগ কৃষি ও সমবায় সম্পাদক মো. মোজাম্মেল হক থান, নবনির্মিত মন্দির কমিটির সভাপতি সুবাস চক্রবর্তী ও কমিটির সাধারণ সম্পাদক নবীন কুমার রায় প্রমুখ। অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন আন্তর্জাতিক সেবা সংগঠন এপেক্স ক্লাবের সাবেক জাতীয় সভাপতি অভিজিৎ দাস বিব, হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদের আহ্বায়ক বিমল পাল ও উপজেলা পূজা উৎযাপন পরিষদের সভাপতি মহাদেব ঘোষ।

এলাকাবাসী স্থানীয়ভাবে প্রায় ৪০ লাখ টাকা ব্যয়ে নয়নাভিরাম এই মন্দির নির্মাণ করে। শারদীয় দূর্গোৎসবের আগে এই মন্দির উদ্বোধন ঘিরে হিন্দু সম্প্রদায়ের মধ্যে উৎসব আমেজ বিরাজ করে।

জনকন্ঠ

Leave a Reply