মুন্সীগঞ্জে জেলা পরিষদ নির্বাচনে যারা বিজয়ী হলেন

মঈনউদ্দিন সুমন: উৎসব মুখর পরিবেশে মুন্সীগঞ্জে জেলা পরিষদ নির্বাচন সম্পন্ন হয়েছে। ১৫টি ভোটকেন্দ্রের মধ্যে ১২টি কেন্দ্রে ভোটাধিকার প্রয়োগ করেছেন ৭৪০ জন জনপ্রতিনিধি।

শ্রীনগর উপজেলার তিনটি ভোটকেন্দ্র প্রার্থীরা বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হওয়ায় শ্রীনগর, সমষপুর ও রাঢ়িখাল ইউনিয়নের ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হয়নি।

এদিকে মুন্সীগঞ্জ জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী আলহাজ্ব মোহাম্মদ মহিউদ্দীন বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হওয়ায় ভোট হয়েছে সাধারণ ও সংরক্ষিত মহিলা সদস্য পদে।

ভোটগ্রহণ চলাকালে জেলার পাঁচটি উপজেলার কোথাও কোনো অপ্রীতিকর ঘটনার খবর পাওয়া যায়নি। কেন্দ্রগুলোতে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর উপস্থিতি ছিল চোখে পড়ার মতো।

বেলা ২টার পর থেকে ভোট গণণা শুরু হয়। সাধারণ সদস্যদের মধ্যে বেসকারিভাবে নির্বাচিত হয়েছেন ১ নম্বর ওয়ার্ডে এস এম আলমগীর হোসেন, ২ নম্বর ওয়ার্ডে আলী আহম্মদ বাচ্চু, ৩ নম্বর ওয়ার্ডে মিরজা মো. হয়দার নেকবর, ৯ নম্বর ওয়ার্ডে মো. আনিছুর রহমান, ১০ নম্বর ওয়ার্ডে তাজুল ইসলাম, ১১ নম্বর ওয়ার্ডে গোলাম রসুল সিরাজী রোমান, ১২ নম্বর ওয়ার্ডে আরিফুর রহমান আরিফ, ১৪ নম্বর ওয়ার্ডে মো. নাজমুল হোসেন ও ১৫ নম্বর ওয়ার্ডে সাঈদুর রহমান খান।

এর আগে সাধারণ সদস্য পদে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হন ৪ নম্বর ওয়ার্ডে ইকবাল হোসেন মাস্টার, ৫ নম্বর ওয়ার্ডে মনির হোসেন মিটুল, ৬ নম্বর ওয়ার্ডে এম মাহবুব-উল্লা, ৮ নম্বর ওয়ার্ডে মো. ইদ্রিস শেখ ও ১৩ নম্বর ওয়ার্ডে মো. আফসার উদ্দিন ভূইয়া।

এদিকে, ৭ নম্বর ওয়ার্ডের সাধারণ সদস্য পদে প্রার্থী আক্তার হোসেন খান বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হয়েও আদালতে মামলা থাকার কারণে তা স্থগিত করা হয়।

সংরক্ষিত মহিলা সদস্য পদে জয়ী হয়েছেন ১ নম্বর ওয়ার্ডে হোসনেয়ারা বেগম, ৩ নম্বর ওয়ার্ডে আকলিমা বেগম, ৪ নম্বর ওয়ার্ডে মোরশেদা বেগম লিপি ও ৫ নম্বর ওয়ার্ডে মর্জিনা বেগম। ২ নম্বর ওয়ার্ডের নূরজাহান বেগম আগেই বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হন।

এনটিভি

Leave a Reply