সরস্বতী পূজা পালিত

রাহমান মনি: বিপুল উৎসাহ-উদ্দীপনা, উৎসবমুখর পরিবেশ এবং নানা আয়োজনের মধ্য দিয়ে ৫ ফেব্রুয়ারি রোববার হিন্দু ধর্মাবলম্বীদের অন্যতম ধর্মীয় উৎসব শ্রীশ্রী সরস্বতী পূজা উদ্যাপিত হয়েছে জাপানে। প্রতি বছরের মতো এবারও সার্বজনীন পূজা কমিটি জাপান বিদ্যাদেবীর এই মহোৎসবের আয়োজন করে। এবারের আয়োজন ছিল সার্বজনীন পূজা কমিটি জাপান’র ২২তম আয়োজন।

টোকিওর কিতা আকাবানে কুমিন সেন্টার-এ অস্থায়ী পূজাম-পে সকাল থেকেই ছোট ছোট ছেলেমেয়ে, তরুণ-তরুণীরা তাদের অভিভাবকদের সাথে প্রচ- শীতকে উপেক্ষা করে রং-বেরঙের পোশাক পরে সরস্বতী দেবীর বন্দনায় পূজাম-পে হাজির হতে থাকে। কৃপা লাভের আশায় সনাতন ধর্মাবলম্বীরা বিদ্যাদেবী সরস্বতীর পাদপদ্মে পুষ্পাঞ্জলি দিয়েছে শিক্ষার্থীসহ নানা পেশা ও নানান বয়সের মানুষ। অনেক শিক্ষার্থী আবার তাদের বইগুলো রেখে দেন মায়ের চরণে আশীর্বাদের জন্য। প্রথম শিক্ষাজীবন শুরু করার জন্য অভিভাবকরা তাদের সন্তানদের নিয়ে আসেন পূজা পরিচালনার ঠাকুরের কাছে।

শত শত হিন্দু ধর্মাবলম্বী ছাড়াও আবহমান বাংলা ও বাঙালির ঐতিহ্যবাহী এ অনুষ্ঠানে বিভিন্ন ধর্মের বিভিন্ন বর্ণের উল্লেখযোগ্য সংখ্যক প্রবাসী বাংলাদেশি এবং স্থানীয় জাপানিদের উপস্থিতি, অঞ্জলি, উলুধ্বনি, কাঁসর বাজনা, দেবীবন্দনা এবং পুরোহিতের ঘণ্টা ও শঙ্খধ্বনিতে মুখরিত ছিল পূজাম-প।

দুপুরে পূজার প্রসাদ বিতরণ শেষে দ্বিতীয় পর্বে শুরু হয় পূজা বিষয়ক আলোচনা অনুষ্ঠান। তনুশ্রী বিশ্বাসের পরিচালনায় আলোচনা অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন রাষ্ট্রদূত রাবাব ফাতিমা।

সার্বজনীন পূজা কমিটির সভাপতি সুনীল রায় স্বাগত ও শুভেচ্ছা বক্তব্যে সার্বজনীন পূজা কমিটি জাপানের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি শ্রী সঞ্জয় দত্তের অকাল প্রয়াণে গভীর শোক প্রকাশ করে তার স্মৃতির প্রতি সম্মান প্রদর্শন, আত্মার শান্তি কামনা এবং পরিবারবর্গের প্রতি সমবেদনা জ্ঞাপন করে।

সাধারণ সম্পাদক শ্রী রতন বর্মণ এবারও বরাবরের মতো সবাইকে আসার জন্য ধন্যবাদ জানান।

আলোচনায় অংশ নিয়ে ড. তপন পাল পূজা আয়োজনে নেপথ্যের কর্মযজ্ঞের কথা বিশদভাবে তুলে ধরেন। উপদেষ্টা শ্রী সুখেন ব্রহ্ম তার বক্তব্যে সরস্বতী পূজার তাৎপর্যে জ্ঞানগভীর আলোচনা করেন। তিনি বলেন, বিভিন্ন পুরাণ ও সাহিত্যে সরস্বতীকে নানাভাবে বর্ণনা করা হয়েছে। সরস্বতী পূজার মাস, তিথির মধ্যেও আছে নানা বৈচিত্র্য। বহু নামে, বহু অভিধায় তিনি পরিচিত। যেমন, ব্রাহ্মী, ভারতী, ভাষা, বাক্বাণী, ইরা, বাগদেবী ও ঈশ্বর। সরস্বতীর রূপ কল্পনার মধ্যেও ভিন্নতা পরিলক্ষিত হয়। তিনি কোথাও পদ্মের উপর বসে আছেন, কোথাও দ-ায়মান, কোথাও পদ্মোপবিষ্ট হংসবাহন আবার কোথাও-বা ময়ূরবাহনা সরস্বতী, সিংহবাহিনী সরস্বতী। পদ্ম সৌন্দর্য সৃষ্টির, জল জীবনের এবং মুকুট তার সম্মানের প্রতীক।

তিনি আরও বলেন, এই পূজা শুধু বাঙালিদের মধ্যেই প্রচলিত নয়, দক্ষিণ এশিয়ায় বিভিন্ন অঞ্চলসহ পৃথিবীর বেশকিছু দেশে যেমন জাপান, গ্রিক এমনকি বৌদ্ধধর্ম এবং জৈন ধর্মেও সরস্বতীর অস্তিত্ব রয়েছে।

প্রধান অতিথির শুভেচ্ছা বক্তব্যে রাষ্ট্রদূত রাবাব ফাতিমা বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য, বর্ষীয়ান নেতা এবং সংসদ সদস্য শ্রী সুরঞ্জিত সেনগুপ্তের মৃত্যুতে গভীর শোক প্রকাশ করেন। তিনি ২২ বছর যাবৎ জাপানে পূজা আয়োজনের ভূয়সী প্রশংসা করেন। তিনি আয়োজক ও কমিউনিটিকে ধন্যবাদ জানান।
এ ছাড়াও শ্রী বিমান কুমার পোদ্দার পূজা বিষয়ক আলোচনায় অংশ নেন।

আলোচনা অনুষ্ঠান শেষে শিশু-কিশোরদের ভ্যারাইটি অনুষ্ঠানটি পরিচালনা করেন ববিতা পোদ্দার স্বরলিপির শিক্ষার্থীবৃন্দ এবং একঝাঁক শিশু-কিশোর ভ্যারাইটি অনুষ্ঠানে অংশ নেয়।
ভক্তিমূলক গান এবং সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান খন্দকার ফজলুল হক রতনের পরিচালনায় উত্তরণ অংশ নেয়। এবং সবশেষে যথারীতি সন্ধ্যা আরতী, আলিঙ্গন এবং মিষ্টি বিতরণের মধ্য দিয়ে শেষ হয় ২২তম সরস্বতী পূজা ২০১৭।

rahmanmoni@gmail.com

সাপ্তাহিক

Leave a Reply