সিরাজদিখানে আমন ধানের বাম্পার ফলন; কৃষকের মুখে হাসি

অনুকূল আবহাওয়ার কারণে মুন্সীগঞ্জের সিরাজদিখান উপজেলায় এবার ধানের বাম্পার ফলন হয়েছে। উপজেলার কৃষকরা আগের সব লোকসান কাটিয়ে লাভের আশা করছেন। তাই কৃষকের মুখে হাসি ফুটে উঠেছে। ধান পেকে যাওয়ায় বর্তমানে কৃষকরা ধান কাটতে ব্যস্ত সময় পার করছে।

বর্তমানে প্রথমদিকে লাগানো ধান কাটা চলছে। উপজেলায় ৭ দিনের মধ্যেই পুরোদমে ধানা কাটা শুরু হবে।

সরেজমিন দেখা যায়, চলতি মৌসুমে উপজেলার ১৪টি ইউনিয়নের ২৭০ হেক্টর জমিতে রোপা আমন ধানের চাষ হয়েছে। এ বছর গত বছরের তুলনায় রোগ-বালাই কম হয়েছে। উপজেলার কৃষকেরা এ বছর বোনা আমনের চেয়ে রোপা আমন চাষে বেশি আগ্রহী ছিল। কারণ বর্ষা মৌসুমে জমিতে সেচ না লাগায় এবং জমিতে সার, বীজ, কীটনাশক ও নিড়ানি খরচ কম লাগায় এতে কৃষকদের আগ্রহ বেড়ে যায়। জানা গেছে, চলতি বছর রোপা আমনের লক্ষ্যমাত্রা ধরা হয়েছিল ৩৫০ হেক্টর। আবাদ করা হয়েছে ২৭০ হেক্টর জমিতে।

সময়মতো বীজ না পাওয়াতে লক্ষ্যমাত্রায় রোপা আমন চাষ করা যায়নি। রোপা আমনের মধ্যে রয়েছে ৪৯,৫১ কিন্তু ৫২ জাতের ধান সরবরাহ করেনি সিরাজদিখানে এ বছর বিএডিসি। সিরাজদিখান কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপসহকারী কৃষি কর্মকর্তা মিজানুর রহমান মিজান জানান, এবার কোনো প্রাকৃতিক দুর্যোগ না হওয়ায় রোপা আমন ধানের বাম্পার ফলন হয়েছে। ধানের মাম্পার ফলন হওয়াতে কৃষকরা দামও ভাল পাবে।

ভোরের পাতা

Leave a Reply