নারী জাগরনে মুন্সীগঞ্জ জেলা প্রশাসকের ব্যতিক্রম উদ্দ্যোগ

জসীম উদ্দীন দেওয়ান : সামাজিক অনাচার রুখতে, মেয়েদের এগিয়ে আসার অনুপ্রেরণা জাগাতে, বাল্য বিবাহ রুখে দিতে, ইভটিজিং এবং মাদকসহ নানা অপকর্ম প্রতিরোধকল্পে, মুন্সীগঞ্জের মেয়েদের প্রেরণার উৎস হিসেবে দাঁড়ালেন মুন্সীগঞ্জের জেলা প্রশাসক সায়লা ফারজানা। আর মেয়েদের এসব কর্মসূচিতে সহযোগিতা দেবে প্রেরণা মুন্সীগঞ্জ।

জেলা প্রশাসক সায়লা ফারজানা আমাদের জাতীয় কবি, প্রেরণার কবি , কাজী নজরুল ইসলামের কবিতার উদ্ধৃত্বি দিয়ে বলেন, পুরুষদের নানা অপকর্ম থেকে ফিরিয়ে আনতে নারীরা খুব বেশি রকমের ভুমিকা রাখতে পারে। নজরুলের মতে পুরুষরা হৃদয়হীন। নারীরাই পারে হৃদয়হীন পুরুষদের কিছুটা হৃদয় ঋন দিতে। আর নারীদের কাছ থেকে ধার নেয়া এই হৃদয়ের প্রেরণায় আমাদের সমাজের নষ্ট ছেলেরা অথবা প্রাপ্ত বয়স্করা সঠিক পথের দিকে ফিরিয়ে আসতে পারে। নারীদের ভালোবাসা, নারীদের সঠিক পরিচর্চায় বদলে যেতে পারে আমাদের সমাজ।

এ ছাড়া নারীরা নিজেরাই নিজেদের আত্মমর্যাদাশীল করে গড়ে তোলবে। এই বিশ্বাসেই নারীদের জাগ্রত করতে জেলা প্রশাসক সায়লা ফারজানার প্রেরণা মুন্সীগঞ্জ। প্রেরণা মুন্সীগঞ্জ শনিবার বিকালে জেলা ষ্টেডিয়ামে আটটি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের ছাত্রীদের নিয়ে আলোচনা সভা, সাইকেল বিতরণ এবং সংগীত অনুষ্ঠানের আয়োজন করেন। এসময় সিভিল প্রশাসন ও জনপ্রতিনিধি ও সাংবাদিকদের নিয়ে সায়লা ফারজানা আটটি স্কুলের ছাত্রীদের জন্য ১৬টি সাইকেল উপহার দেন। যে সব উপহার পেয়ে উজ্জিবীত হয়ে ওঠে মেয়েরা। নিজেদের সমাজে দায়িত্বশীল হিসেকে গড়ে তোলতে উজ্জিবীত মেয়েরা উপহার পাওয়া সাইকেলে চড়ে ষ্টেডিয়ামের ভিতর একটি সাইকেল রেস প্রদর্শন করেন। মেয়েরাও পারে, পারতে হব মেয়েদের এই চিন্তার বাস্তবায়নে সায়লা ফারজানা ঘোষনা দেন, জেলার ১৬৭টি উচ্চ বিদ্যালয়েই পর্যায়ক্রমে সাইকেল দেয়া হবে। তিনি বলেন, প্রেরণা মুন্সীগঞ্জ নারী উন্নয়নে এক শক্তিশালী প্লাটফর্ম।

Leave a Reply