ভোগান্তি : মুন্সীগঞ্জের গনকপাড়া রাস্তার বেহাল দশায়

হাসান জুয়েল: মুন্সীগঞ্জ পৌরসভার গনকপাড়া চৌরাস্তা থেকে পূর্ব সরদারপাড়া বাগবাড়ী পর্যন্ত রাস্তাটি প্রায় দীর্ঘ ১০বছরের বেশি সময় যাবত বেহাল দশা। রাস্তাটির পিচ ভেঙ্গে গর্ত হয়ে যানবাহক চলাচলের অনুপযোগী হয়ে আছে। এতে চরম ভোগান্তিতে একালার মানুষসহ প্রতিদিন এ রাস্তা দিয়ে যাতায়াত করা বিভিন্ন একালার হাজার হাজার মানুষ। রাস্তায় পাশে ড্রেন না থাকায় টানা দুএক দিনের বৃষ্টিতে রাস্তাটি খালের রুপ ধারন করে। এতে করে প্রায় সময় ঘটছে ছোট বড় দুর্ঘটনা। দীর্ঘ দিনের এ ভাঙ্গা রাস্তাটি অতিদ্রুত সংস্কারের দাবী এলাকাবাসীর।

গনকপাড়ার বাসিন্দা ব্যবসায়ী আরসাদ জানান, আমরা বাংলাদেশের প্রথম শ্রেণীর পৌরসভার নাগরিক হয়েও, যথা সময়ে পৌরসভার সকল পৌরকর পরিশোধ করার পরেও দীর্ঘ দিন যাবত চলাচলের অনুপযোগী ভাঙ্গা রাস্তাটি দিয়ে যাতায়াত করছি। এ ভাঙ্গা রাস্তাটি দিয়ে রিকসা ও অন্যান্য যানবাহন দিয়ে যাতায়াত করতে গিয়ে আমরা প্রায় সময় দুর্ঘটনার স্বীকার হচ্ছি। রাস্তাটিতে ড্রেন না থাকা ও আশপাশের বাড়ি থেকে নেমে আসা ময়লা পানি ও বৃষ্টির পানি একাকার হয়ে জলাবর্তা সৃষ্টি হয়ে জনজীবনে ভোগান্তি তৈরি হচ্ছে।

গনকপাড়ার বাসিন্দা নাজিম উদ্দিন জানান, রাস্তাটি ভাঙ্গা থাকায় প্রতিদিন শত শত স্কুলগামী ছাত্র ছাত্রীদেরও ভোগান্তিতে পরতে হচ্ছে। আর বৃষ্টি হলে পায়ে হেটে চলারও কোন উপায় থাকেনা। রাস্তাটি ভাঙ্গা থাকার আমাদেরকে জরুরি রোগী পাসপাতালে নিতে দুরের অন্য কোন বিকল্প রাস্তা বেছে নিতে হচ্ছে। আমরা গনকপাড়াবাসী এবং এ রাস্তা দিয়ে প্রতিদিন যাতায়াত করা অন্যান্য মানুষগুলো কষ্ট করে অনেকটা বাধ্য হয়েই জীবনের ঝুকি নিয়ে রাস্তাটি ব্যবহার করে আসছি। রাস্তাটি দ্রুত সংস্কার করে চলাচলের উপযোগী করে দিতে আমরা সরকারের কাছে দাবি যানাচ্ছি।

মুন্সীগঞ্জ পৌরসভার সহকারী প্রকৌশলী মোহাম্মদ আলী জানান, ইতি মধ্যে দেওভোগ থেকে গকনপাড়া পর্যন্ত ভাঙ্গা রাস্তাটি ড্রেনসহ সংস্কার কাজ শুরু করেছি আগামী ২০১৮ সালের এপ্রিলের দিকে কাজটি সম্পন্ন হওয়ার কথা রয়েছে।

Leave a Reply