মোল্লাকান্দি আওয়ামী লীগে বিএনপির অনুপ্রবেশ

আধিপত্য বজায় রাখা ও পুনরুদ্ধার নিয়ে মুন্সীগঞ্জের মোল্লাকান্দি ইউনিয়নে আওয়ামী লীগের দু’পক্ষের বিরোধের নেপথ্যে বিএনপির নেতাকর্মীরা কলকাঠি নাড়ছে বলে জানা গেছে। বর্তমানে নব্য আওয়ামী লীগ কর্মী হয়ে গ্রামে প্রকাশ্যে অস্ত্র নিয়ে মহড়াও দিচ্ছে বিএনপির চিহ্নিত সন্ত্রাসীরা। গত ইউপি নির্বাচনে নৌকা প্রতীকের বিদ্রোহী প্রার্থী থাকার সুযোগে আওয়ামী লীগের দু’পক্ষে অনুপ্রবেশ করে বিএনপির নেতাকর্মীরা। বর্তমানে এক পক্ষে ৭০ ভাগ ও অপর পক্ষে ৩০ ভাগ বিএনপির নেতাকর্মী রয়েছে বলে আওয়ামী লীগ নেতাকর্মীরা জানিয়েছে। আওয়ামী লীগের দু’পক্ষের নেতৃবৃন্দও এর সত্যতা নিশ্চিত করে একে অপরকে দোষারোপ করেছেন।

অন্যদিকে মোল্লাকান্দির উত্তপ্ত পরিস্থিতি স্বাভাবিক করতে গতকাল সোমবার পুলিশ সুপার কার্যালয়ে দু’পক্ষের নেতৃবৃন্দকে নিয়ে সভা করেছে পুলিশ। ১০ জনের একটি কমিটি গঠন করার লক্ষ্যে দু’পক্ষের ৫ জন করে ১০ জনের নামের তালিকা আজ মঙ্গলবার দাখিল করতে বলা হয়েছে।

গ্রামবাসী ও আওয়ামী লীগ নেতাকর্মীরা জানান, গত ইউপি নির্বাচনে নিজদলীয় চেয়ারম্যান প্রার্থী না থাকায় ইউনিয়ন বিএনপির নেতাকর্মীরা আওয়ামী লীগের দলীয় প্রার্থী ও বিদ্রোহী প্রার্থীকে পৃথকভাবে সমর্থন দিয়ে দলে মিশে যায়। ইউপি চেয়ারম্যান মহসিনা হক কল্পনার পক্ষে ৭০ ভাগ এবং সাবেক চেয়ারম্যান রিপন পাটোয়ারীর পক্ষে ৩০ ভাগ বিএনপি নেতাকর্মী রয়েছে বলে জানা যায়। আওয়ামী লীগ নেতাকর্মীরা জানান, পূর্ব মাকহাটীর মিল্টন মল্লিক বিএনপির চিহ্নিত সন্ত্রাসী ও ওয়ারেন্টভুক্ত পলাতক আসামি। রোববার সন্ধ্যায় মিল্টন মল্লিক একই গ্রামের এক আওয়ামী লীগ কর্মীকে মারধর করে। গত ২৮ নভেম্বর চরডুমুরিয়া গ্রামে এক শিক্ষকের কাছে দুই লাখ টাকা চাঁদা দাবির সময় সশস্ত্র অবস্থায় ছিল মিল্টন। এ ছাড়া গত ২৫ এপ্রিল মিল্টন মল্লিক তার অস্ত্রধারী বাহিনী নিয়ে প্রতিপক্ষের বাড়িতে গিয়ে হুমকিসহ গ্রামে প্রকাশ্যে অস্ত্রের মহড়া দেয়। মিল্টনের মতো আরও একাধিক বিএনপির চিহ্নিত সন্ত্রাসী এখন মোল্লাকান্দির বিভিন্ন গ্রাম দাপিয়ে বেড়াচ্ছে। ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আজাহার মোল্লা জানান, গত ইউপি নির্বাচনে ভোটের লোভে দলের চেয়ারম্যান প্রার্থী ও বিদ্রোহী প্রার্থী দু’জনই বিএনপি নেতাকর্মীকে কাছে টেনে নেন।

আওয়ামী লীগ নেত্রী ও মোল্লাকান্দি ইউপি চেয়ারম্যান মহসিনা হক কল্পনা জানান, ইউনিয়ন বিএনপির শীর্ষ নেতারাই কলকাঠি নেড়ে আওয়ামী লীগের দু’পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষ বাঁধিয়ে দিচ্ছে। বিএনপি নেতা আতিক মল্লিকের ছেলে এলাকায় প্রকাশ্যে অস্ত্র নিয়ে ঘুরছে।

সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদক ও সাবেক চেয়ারম্যান রিপন পাটোয়ারী বলেন, তার পক্ষে ২০ ভাগ থাকলেও ৮০ ভাগ বিএনপি নেতাকর্মী ইউপি চেয়ারম্যান মহসিনা হক কল্পনার পক্ষ নিয়ে মোল্লাকান্দিকে অশান্ত করে তুলেছে। তার মধ্যে বিএনপি চিহ্নিত সন্ত্রাসী মিল্টন মল্লিক অন্যতম।

সমকাল

Leave a Reply