শ্রীনগরে শাহ মোয়াজ্জেম হোসেনের গাড়ি বহরে পুলিশের বাঁধা!

আরিফ হোসেন: সাবেক উপ-প্রধানমন্ত্রী ও বিএনপির কেন্দ্রীয় কমিটির ভাইস চেয়ারম্যান শাহ মোয়াজ্জেম হোসেন শ্রীনগরে একটি বিয়ের অনুষ্ঠানে যাওয়ার পথে পুলিশ দু’দফা বাঁধার সৃষ্টি করে। শনিবার দুপুরে মোটর শোভা যাত্রা সহ ঢাকা থেকে শ্রীনগর আসার পথে ঢাকা-মাওয়া মহাসড়কের ছনবাড়ী ও শ্রীনগর ফায়ার সার্ভিস সংলগ্ন এঘটনা ঘটে।

শাহ মোয়াজ্জেম হোসেন পরে শ্রীনগর প্রেসক্লাবে এসে উপস্থিত সাংবাদিকদের উদ্দেশ্যে বলেন, দেশ স্বাধীন করেছি অথচ স্বাধীন দেশে নিজ ভূমিতে একটি সামাজিক অনুষ্ঠানে আসতে পুলিশ এখন বাধা দিচ্ছে। তিনি প্রশ্ন রাখেন, এটা কিসের আলামত? গনতন্ত্র না স্বৈরতন্ত্র। বাংলাদেশের স্বাধীনতার জন্য নিজের জীবন যৌবন বিসর্জন দিয়েছি। দেশের গনতন্ত্রের জন্য, স্বাধীনতার জন্য বছরের পর বছর জেল খেটেছি। এতে আমার কোন দুঃখ নেই। অথচ আজ এই স্বাধীন দেশের এ কি চিত্র দেখছি!

শ্রীনগর আমার এলাকা। এখানকার সন্তান কেন্দ্রীয় যুব দল নেতা তাজুল ইসলামের ভাতিজার বৌভাত অনুষ্ঠানে যোগদিতে ঢাকা থেকে আসার পথে ঢাকা-মাওয়া মহাসড়কের ছনবাড়ী ও শ্রীনগর ফায়ার সার্ভিস এলাকায় পুলিশ আমার গাড়ী আটকে দেয়। যা বর্তমান আওয়ামী সরকারের ফ্যাসীবাদের বহিঃপ্রকাশ ছাড়া অন্য কিছু নয়। এসময় তাঁর সাথে উপস্থিত ছিলেন বিএনপির কেন্দ্রীয় নেতা আনোয়ার হোসেন ভূইয়া, ঢাকা দক্ষিণ বিএনপির যুগ্ন সম্পাদক শেখ ফরহাদ হোসেন, শ্রীনগর উপজেলার সাবেক চেয়ারম্যান ও জাতীয়তাবাদী মুক্তিযোদ্ধা দলের কেন্দ্রীয় ভাইস-চেয়ারম্যান কাজী আজিজুল হক (লেবু কাজী), মুন্সীগঞ্জ জেলা বিএনপির সহ-সভাপতি এড. দুলাল দাস, সিরাজদিখান উপজেলা বিএনপির সভাপতি আব্দুল কুদ্দুস ধীরন, শ্রীনগর উপজেলা বিএনপির সভাপতি শহিদুল ইসলাম , সাধারণ সম্পাদক আবুল কালাম কানন, সাংগঠনিক সম্পাদক সাখাওয়াত হোসেন মুকুল, জেলা যুবদলের সাধারণ সম্পাদক ইকবাল হোসেন স¤্রাট, যুবদল নেতা জামাল শেখ প্রমুখ।

Leave a Reply