সিরাজদিখানে সোনালী ব্যাংকের শাখা দেউলিয়ার পথে

নাছির উদ্দিন: সিরাজদিখানে সোনালী ব্যাংকের একটি শাখা ব্যাংক দেউলিয়া হওয়ার পথে। রবিবার উপজেলার মালখানগর ইউনিয়নের তালতলা সোনালী ব্যাংক শাখায় ৫ হাজার টাকা লেন দেন করা ক্ষমতা হারিয়েছে ব্যাংকাট। দের ঘন্টা পর বয়স্ক ভাতা, বিধবা ভাতা ও প্রতিবন্ধী ভাতার অর্ধেক উত্তলণ।

জানা যায়, রবিবার বয়স্ক ভাতা, বিধবা ভাতা ও প্রতিবন্ধী ভাতা উত্তলণের কথা ছিল। সকাল ১০ থেকে ভাতার জন্য ব্যাংকে আসে ভাতা গ্রহিতারা। ব্যাংকে কোন টাকা না থাকায় গ্রহকদের মধ্যে ক্ষোভ তৈরি হতে থাকে। গ্রহকদের শান্তনা দেয়া হয় কিছুক্ষণ পর টাকা দেয়া হবে। সোনালী ব্যাংক মুন্সীগঞ্জ শাখা হতে কিছু টাকা এনে পরিস্থিতি সাভাবিক করা হয়। বেলা সাড়ে ১১ টায় শুরু হয় ব্যাংকের কার্যক্রম। টাকা সংকটের কারণে বিধবা ভাতা ৬ মাসের ৩ হাজার টাকা হলেও তাদেরকে ৩ মাসের ১৫শত কাটা করে দেয়া হয়। বয়স্ক ভাতা ৮ মাসের হলেও তাদেরকে ৬ মাসের ৩ হাজার টাকা করে দেয়া হয়। প্রতিবন্ধীদের ভাতা অর্ধেক করে দেয়াহয়। ভুক্তভূগীদের অভিযোগ করে বলেন সকাল থেকে ব্যাংকে টাকার জন্য আসলে ব্যাংকে কোন টাকা নাই। মুন্সীগঞ্জ থেকে টাকা এনে দের ঘন্টা পর আমাদের টাকা দিতাছে।

তালতলা সোনালী ব্যাংক শাখার ম্যানেজার মো. জাকির হোসেন জানান, বৃহস্পতিবার ব্যাংকে কোন টাকা আসেনি। আমি ছুটিতে ছিলাম। আজ বয়স্ক ভাতা দেওয়ার কথা ছিল। ব্যাংকে ৫ হাজার টাকাও ছিলনা তাই মুন্সীগঞ্জ থেকে টাকা এনে টাকা দিতে দেরি হয়।

Leave a Reply