প্রতিযোগিতায় না নেমে সন্তানকে মানুষ করুন

মুন্সীগঞ্জে ইমদাদুল হক মিলন
‘বাচ্চাদের প্রতি সহানুভূতি দেখাতে হবে। কোনো প্রতিযোগিতায় না নেমে সন্তানদের মানুষ করুন। আমরা মানুষ চাই, জিপিএ ৫ চাই না; যে জিপিএ ৫ পাওয়া ৩৬ হাজার শিক্ষার্থীর মধ্যে মাত্র দুজন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হয়।’ কালের কণ্ঠ সম্পাদক ও জনপ্রিয় কথাসাহিত্যিক ইমদাদুল হক মিলন গতকাল বুধবার মুন্সীগঞ্জে জিপিএইচ ইন্টারন্যাশনাল স্কুলের বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে অভিভাবকদের উদ্দেশে এসব কথা বলেন।

শিক্ষার্থীদের উদ্দেশ করে কালের কণ্ঠ সম্পাদক বলেন, ‘বড় হতে হলে আগে মানুষ হতে হবে। আমরা যখন মুরব্বিদের পায়ে হাত দিয়ে সালাম করি তখন তাঁরা বলেন—মানুষ হও। কেন বলেন? কারণ মানুষ হতে হয়। মানুষের মতো মানুষ না হলে শিক্ষার কোনো দাম নেই। তাই শিক্ষার পাশাপাশি আগে মানুষ হতে হবে।’

ইমদাদুল হক মিলন বলেন, ‘মুন্সীগঞ্জ-বিক্রমপুর একসময় ছিল শিক্ষাদীক্ষায় অগ্রগামী। তার প্রমাণ মেলে শত বছরের পুরনো স্কুলগুলোর দিকে তাকালে। কিন্তু একটা সময় এলো যখন শিক্ষার দেবী সরস্বতী বিক্রমপুর থেকে বেরিয়ে গেল। সেখানে প্রবেশ করল লক্ষ্মী। অর্থাৎ বিক্রমপুরের ঘরে ঘরে টাকাওয়ালা লোকজন তৈরি হলো। কিন্তু সেটা একটা এলাকা বা দেশের জন্য মঙ্গলকর নয়। এখন সময়টা ঘুরে এসেছে। তাইতো ক্রাউন সিমেন্ট কম্পানির মতো প্রতিষ্ঠান এখন মানুষ গড়ার কাজে হাত দিয়েছে। তারা মুন্সীগঞ্জের মতো পল্লী শহরে গড়ে তুলেছে মানসম্পন্ন ইংলিশ মিডিয়াম স্কুল। তাদের মতো সমাজের বিত্তবানদের উচিত মানুষ গড়ার এই জায়গাটায় এগিয়ে আসা। তবেই আমরা একটি ভালো ও শিক্ষিত জাতি পেতে পারি।’

অনুষ্ঠানের বিশেষ অতিথি বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির চেয়ারম্যান ও ক্রাউন সিমেন্টের অতিরিক্ত ব্যবস্থাপনা পরিচালক আলমগীর হোসেন বলেন, ‘আজকের এই ক্রীড়া অনুষ্ঠানে বাচ্চাদের উৎসাহ দেখে আমার ভালো লাগছে। এই বিদ্যালয়টি প্রতিষ্ঠা করে আমার সফলতা এসেছে। এলাকাবাসী ইংলিশ ও আধুনিক শিক্ষায় তাদের সন্তানদের গড়ে তুলতে পারছে। সন্তানদের মানসম্মত শিক্ষার ভিত গড়ে তুলতে পেরে আমার এই প্রতিষ্ঠানের সার্থকতা এসেছে। আগামীতে আমরা নিজেদেরকে ভালো জাতি হিসেবে গড়ে তুলতে পারব। আমাদের চ্যালেঞ্জ মানসম্পন্ন শিক্ষা নিশ্চিত করা। আর সেই লক্ষ্যকে সামনে রেখে আমরা বাচ্চাদের শিক্ষা দিয়ে যাচ্ছি। আমাদের এই প্রচেষ্টা অব্যাহত থাকবে।’

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে আরো উপস্থিত ছিলেন জেলা শিক্ষা কর্মকর্তা ফরিদুল ইসলাম। বিদ্যালয়টির অধ্যক্ষ কাজী তৌহিদ এলাহী অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন।

কালের কণ্ঠ

Leave a Reply