শাহীনকে দেখতে হাসপাতালে মুন্সীগঞ্জের ডিসি : বিমান দুর্ঘটনা

নেপালে বিমান দুর্ঘটনায় আহত লৌহজং উপজেলার কলমা গ্রামের শাহিন বেপারীকে দেখতে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে গিয়েছিলেন মুন্সীগঞ্জের জেলা প্রশাসক (ডিসি) সায়লা ফারজানা।

শনিবার দুপুরে জেলা প্রশাসক ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের বার্ন ইউনিটের আইসিইউতে গিয়ে শাহিন বেপারীর খোঁজ-খবর নেন। এবং তার স্ত্রী রিমা আক্তার ও সংশ্লিষ্ট ডাক্তারদের সঙ্গে শারীরিক অবস্থা নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা করেন।

আহত শাহীন বেপারীর শরীরের ৩৫ ভাগ পুড়ে গেছে। ১৮ মার্চ তাকে বাংলাদেশে নিয়ে আসা হয়। তার শরীরের অবস্থা আরও খারাপ হলে গত বৃহস্পতিবার তাকে আইসিইউতে ভর্তি করা হয়। তবে বর্তমানে শাহিন বেপারী আগের চাইতে কিছুটা ভালো হলেও নিবিড় পর্যবেক্ষণে রাখা হয়েছে।

এ সময় জেলা প্রশাসক তার ব্যাক্তিগত তহবিল থেকে আহত শাহিনের স্ত্রী রিমার হাতে ৫০ হাজার টাকা সহায়তা হিসেবে তুলে দেন। এ সময় তার সঙ্গে ছিলেন স্থানীয় দৈনিক সভ্যতার আলোর সম্পাদক ও মুন্সীগঞ্জ প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি মীর নাসির উদ্দিন উজ্জ্বল।

এদিকে একই দুর্ঘটনায় মুন্সীগঞ্জের টঙ্গীবাড়ি উপজেলার বেশনাল গ্রামের রিপন বেপারী এখন দিল্লির অ্যাপোলো হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। গত ২০ মার্চ তাকে দিল্লিতে নিয়ে যাওয়া হয় এবং সেখানে তার একটি সফল অস্ত্রোপাচার হয়েছে। বর্তমানে তিনি সুস্থ আছেন বলে জানিয়েছেন তার ভাই দিপু বেপারী।

ভবতোষ চৌধুরী নুপুর/জাগো নিউজ

Leave a Reply