সিরাজদিখানে ঐতিহ্যবাহী কালী পূজা উপলক্ষে মেলায় লাখো মানুষের ঢল

মুন্সীগঞ্জের সিরাজদিখান উপজেলায় প্রতিবারের ন্যায় এ বারো শুরু হয়েছে হিন্দু সম্প্রায়ের ঐতিহাসিক শেখরনগর কালি মন্দিরের শ্রী শ্রী মা রক্ষা কালী পূজা। এই উপলক্ষে মেলায় লাখ মানুষের ঢল।

মঙ্গলবার (৩এপ্রিল) বিকেল থেকে শেখরনগর ইউনিয়নে ইছামতি নদীর প্রাঙ্গনে কয়েকটি গ্রাম নিয়ে এই মেলা বসেছে। শেখরনগর ঋষি সমিতির উদ্যোগে বাংলা ৯০১ সন হতে এ পূজা উদযাপিত হয়ে আসছে। কালীপূজাকে সামনে রেখে সিরাজদিখানে হিন্দু সম্প্রদায়ের মধ্যে উৎসব মুখর পরিবেশ বিরাজ করছে। ৫০০ বছরের বেশি সময় ধরে চলে আসা এই উৎসবের আগমন উপলক্ষ্যে নানা আয়োজন অনুষ্ঠিত হয়ে থাকে।

কালীপূজাকে কেন্দ্র করে মেলার আয়োজন হলেও এখন আর কেবলই হিন্দু সম্প্রদায়ের মেলা হিসেবে আবদ্ধ থাকে না। রূপ নেয় এক সর্বজনীন উৎসবে। বায়না ধ’রে দুলাভায়ের সঙ্গে চুড়ি-ফিতা, দুল-ক্লিপ কিনতে যাবে, সেজন্য থাকে বাড়ির ছোটদের সারা বছরের প্রতীক্ষা। আশপাশের এলাকার ছেলে-মেয়েরা বিয়ের দিন-তারিখ পাকা করার ক্ষেত্রে

মেলা পরবর্তী সময়কেই নাকি বেছে নেয়। কারণ উপহার সামগ্রী বিশেষ করে আসবাবপত্র মেলা থেকেই কিনবে। মেলা চলে ৭ দিনেররও বেশী। মেলায় দেশ বিদেশের অনেক ভক্তবৃন্দ আসে। এই কালীপূজা দেখতে ভারত, নেপাল থেকেও দর্শনার্থীরা ভিড় জমায়।

কালি মন্দিরের সভাপতি শ্রী পলু চন্দ্র দাস জানান, দিনটিকে ঘিরে প্রায় লক্ষাধিক মানুষের বিচরণ ঘটে। বুধবার ভোর ৫ টা থেকে চলবে পাঠাবলি। প্রায় ৪ হাজারেরও বেশী পাঠাবলি হয়। এই মেলাটি সিরাজদিখানের ঐতিহ্যবাহী মেলা ৫শ বছরেরও বেশী সময় থেকে শুরু হয়ে আজও চলমান।

মেলায় শিশুদের জন্য নাগর দোলা, হর্স রেস, রেলওয়ের ভ্রমন ব্যবস্থাও রয়েছে। মেলাতে বিভিন্ন ধরনের গৃহস্থলীর কাজের লোহার তৈরী দা, কোড়াল, বটি, কাচি, হাসুয়া, কোদাল ও পাতি, বাঁশের তেরী গৃহ বধুদেরজন্য চালুন, কোলো-ডালা ইদ্যাদি পাওয়া যাচ্ছে। বিভিন্ন মিষ্টি সামগ্রী পাওয়া যাচ্ছে। কসমেট্রিকস সামগ্রী সহ বিভিন্ন প্রসাধনী পসরা সাজিয়েছে ।

সহকারি পুলিশ সুপার (সিরাজদিখান সার্কেল) আসাদুজ্জামান জানান, কালী পূজার মেলা কে ঘিরে সার্বিক নিরাপত্তার জন্য ৪ শতাধিক আইন শৃঙ্খলা বাহিনী মোতায়েন রয়েছে। বিভিন্ন পয়েন্টে ১০টি সিসি ক্যামেরা স্থাপন করা হয়েছে। শান্তিপূর্ন্য পরিবেশ বজায় রাখতে পুলিশ প্রশাসন পাশে আছে বলে জানান তিনি।

বিডি২৪লাইভ/

Leave a Reply