সিরাজদিখানে সংগঠনের মাধ্যমে বিচারে নামে অবিচার; বাধা দিলে অতর্কিত হামলা

নাছির উদ্দিনঃ সিরাজদিখানে পূর্বশত্রুতার জের ধরে আইন বর্হিবত বিচারকে কেন্দ্র করে অতর্কিত হামলা ১ জন আহত হয়েছে। সংগঠনের মাধ্যমে বিচারের নামে অবিচার, বাধা দিলে হামলা। গত বুধবার সকাল সাড়ে ১০ টায় উপজেলার মাদবর হাটে এ ঘটনা ঘটে। উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স থেকে ভূয়া সার্টিফিকেট দিয়ে ভূক্তভুগীর বিরুদ্ধে মামলা করার পায়তারা করছে।

জানা যায়, উপজেলার মধ্যম কয়রাখোলা গ্রামের মৃত রশিদের ছেলে মো. মনির হোসেন (৪৭) দীর্ঘদিন যাবৎ মাদক বিরোধী সংগঠনের ব্যানারে আইন বিরোধী কর্মকান্ড করে আসছে। কোন বাড়ীতে চুরি হলে তার মন গরা বিচার করেন। যাকে সন্দেহ হয় কোন স্বাক্ষী ছাড়া সংগঠনের মাধ্যমে দোষ চাপিয়ে দেয়। এ আইন বিরোধী কর্মকান্ড নিয়ে একই গ্রামের মৃত তাজির আলী ছেলে আব্দুল মান্নান সিদ্দিকের (৪৮) সাথে বিরোধ চলছে মনির হোসেনের সাথে। গত ২০১৫ ইং সাথে মনির মান্নানের একটি প্রাইভেট কার আগুন দিয়ে জালিয়ে দেয়। আদালতে মামলাটি বিচারাধীন। বুধবার সকালে ১০ টায় মাদবরের হাটে বিকাশের দোকনে যায় আব্দুল মান্নান। জমি সংক্রান্ত একটি কাজে উপজেলা সার্ব রেজিষ্টার অফিসে যাওয়ার জন্য ২ লক্ষ টাকা সাথে করে মাদবরের হাটে যায়। পিছন দিক থেকে মনিরসহ ১০/১৫ জন অতর্কিত হামলা চালিয়ে সাথে থাকা ২ লক্ষ টাকা নিয়ে যায় মান্নানের কাছ থেকে। মান্নায় আহত হয়ে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসা নিয়ে সিরাজদিখান থানায় গতকাল বৃহস্পতিবার অভিযোগ দায়ের করেন। মনির হোসেন কয়রাখোলা গ্রামের মৃত আক্কাছ আলীর ছেলে মো. রিপন (৩৮) কে দিয়ে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স থেকে ভুয়া সার্টিফিকেট তুলে থানায় মামলা করার পায়তারা করছে।

ভুক্তভুগী আব্দুল মান্নায় সিদ্দিক জানান, আমি বিকাসের দোকান থেকে এক জন কে টাকা দিতে গেছি তখন মনিরসহ ১০,১৫ জন আমার উপরে হামলা করে রক্তাত্ত করে। আমার সাথে থাকা ২লাখ ছিনিয়ে নেয়।

অভিযুক্ত মনির হোনের এ বিষয়ে কোন কিছু বলতে রাজি নন বলে তিনি জানায়।

সিরাজদিখান থানার ওসি আবুল কালাম জানান, অভিযোগ পেয়েছি। তদন্ত সাপেক্ষে ব্যবস্থা গ্রহণ কনা হবে।

Leave a Reply