মিরকাদিমে নেট বক্স ছাড়া ক্রিকেট অনুশীলনে হতাহতের ঘটনায় আতংকে শিশু কিশোররা

সদরের মিরকাদিমে গ্রীণ ওয়েল ফেয়ার সেন্টার মাঠে প্রতিনিয়ত নেট বেষ্টনী ছাড়া অনুশীলন করছে গ্রীণ ওয়েল ফেয়ার সেন্টারে ক্রিকেট একাডেমির খেলোয়ারবৃন্দ।এতে করে মাঠে আগত বহিরাগতদের সহ অন্যান্য হতাহতের ঘটনা ঘটছে। ক্রিকেট অনুশীলনে নির্ধারিত নীতিমালা থাকলেও মানছে না মাঠ কমিটি। স্থানীয়দের তথ্যমতে জানা যায় গত চার মাসে ক্রিকেট বল দিয়ে অনুশিলনের সময় প্রায় ৬ জন বল লেগে আহত হয়েছেন। এর মধ্যে একজন বৃন্দ মাঠ দিয়ে যাওয়ার সময় অনুশীলনের বল তার পায়ে লেগে তিনি আহত হয়ে মাঠে পরে যান। পরে স্থানীয়রা তাকে প্রাথমিক চিকিৎসা দেন।

মাঠের মাদরাসা দেয়াল সংলগ্নে লোক দেখানো নেট বেষ্টনী থাকলে ব্যাটিংয়ে বলে চলে যায় অন্যপ্রান্তে। অপর দিকে প্রতিদিনই এই মাঠের বিভিন্ন প্রান্তে বিকাল হলেই খেলায় মেতে উঠেন এলাকার শিশু কিশোররা। তবে তাদের এই খেলায় অনুশীলনের ক্রিকেট বল যেন বড় ধরনের ঝূঁকির সংকেত।

মুন্সীগঞ্জ জেলা ক্রীড়াসংস্থার সাবেক সহ সাধারণ সম্পাদক সংগঠক আয়নাল হক স্বপন বলেন, ক্রিকেট অনুশীলন নিয়ম মেনেই করতে হবে। অনুশীলনের জন্য নেট বক্স বেষ্টনী থাকতে হবে এবং ক্যাচ অনুশীলনে বড় মাঠে খেলার ব্যতিত অন্যকোন ব্যক্তিরা মাঠে থাকতে পারবে না।
এই নিয়ম মেনে ক্লাবগুলোকে অনুশীলন করতে হবে। নতুবা হতাহতের ঘটনা ঘটতে পারে।

এদিকে অনুশীলন কনক্রিটের পাশেই রয়েছে একটি বস্তি। যেখানে প্রতিনিয়ত বল চলে যাচ্ছে। এবং আতংকে রয়েছে মাঠের অন্যশিশুদের মত এই বস্তির শিশুরাও। ক্রিকেটার রনি খান চিতা বলেন, অনুশীলন করার জন্য প্রয়োজনীয় নেট বক্স নেই। তারপরও বিভিন্ন খেলায় অংশ গ্রহণের সুবাদে অনুশীলন করতে হয়। মাঠে শিশু কিশোর খেলোয়াদের সহ সকলের একটাই দাবি গ্রীণ ওয়েল ফেয়ার সেন্টার কমিটি অনুশীলীনে সমস্যা সমাধানে এগিয়ে আসবেন।

Leave a Reply