টঙ্গীবাড়ী ইউএনও টেলিফোনের বাল্যবিয়ে বন্ধ করলেন

টঙ্গীবাড়ীতে টেলিফোনের বাল্যবিয়ে বন্ধ করল ইউএনও। শুক্রবার উপজেলার বেতকা ইউনিয়নের খিলপাড়া গ্রামের আলম দেওয়ানের ১৫ বছর বয়সী নাবালিকা কন্যার বিয়ের দিন ধার্য্য ছিল। উপজেলার ধীপুর ইউনিয়নের মটুকপুর গ্রামের সৌদি প্রবাসী মো: ইউসুফ আলী এর সাথে বিবাহ হওয়ার জন্য জমকালো অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। অতিথিদের আপ্যায়নের জন্য রান্না বান্নার কাজ ও শেষ হয়। টেলিফোনে বাল্য বিয়ের সংবাদে সেখানে ছুটে যান টঙ্গীবাড়ী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোছা: হাসিনা আক্তার। তিনি সেখানে গিয়ে বিয়ে বন্ধ করে দেন। প্রশাসনের লোক আসার সংবাদে উপস্থিত অতিথিরা সবাই চলে যায়। সেখানে কনের পিতা মুচলেখা দেন যে মেয়ের বয়স ১৮ বছর না হওয়া পর্যন্ত তিনি তার বিয়ে দিবেন না। ধীপুর ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান আক্তার হোসেন মোল্লা জানান- আমার এলাকায় আমার অজ্ঞাতে টেলিফোনে বাল্যবিয়েটি সংঘটনের যাবতীয় আয়োজন হয় বিয়ে অনুষ্ঠান শুরুর পূর্বেই ইউএনও বিয়ে বন্ধ করেছেন।

মুন্সিগঞ্জ নিউজ

Leave a Reply