প্রকাশক বাচ্চু হত্যা: ৪ জনকে আসামি করে মামলা

বিশাখা প্রকাশনীর মালিক শাজাহান বাচ্চুকে গুলি করে হত্যার ঘটনায় চারজনকে আসামি করে মামলা হয়েছে। মুন্সীগঞ্জের সিরাজদিখান থানায় মঙ্গলবার মামলাটি করেন এই লেখক-প্রকাশকের দ্বিতীয় স্ত্রী আফসানা।

থানার ওসি মো আবুল কালাম বলেন, মামলায় অজ্ঞাত পরিচয়ের চারজনকে আসামি করা হয়েছে।

সোমবার সন্ধ্যায় সিরাজদিখানের কাকালদী মোড়ে শাজাহান বাচ্চুকে গুলি করে হত্যা করা হয়। দুটি মোটরসাইকেলে করে আসা চারজন গুলি করে পালিয়ে যায় বলে জানিয়েছে পুলিশ।

মুন্সীগঞ্জ জেলা কমিউনিস্ট পার্টির সাবেক সাধারণ সম্পাদক বাচ্চুর (৬৫) বাড়ি উপজেলার মধ্যপাড়া ইউনিয়নের পূর্ব কাকালদী গ্রামে। তাছাড়া তিনি সাপ্তাহিক আমাদের বিক্রমপুর পত্রিকার ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক ছিলেন।

বাচ্চুর পৈত্রিক বাড়ি সিরাজদিখানে হলেও তিনি থাকতেন ঢাকায়। সোমবার বাড়িতে গিয়েছিলেন তিনি।

বাচ্চুকে কারা মেরেছে, তা এখনও পুলিশ বের করতে পারেনি। ফেইসবুকে লেখালেখিকে কেন্দ্র করে বাচ্চু ধর্মীয় উগ্রবাদীদের হুমকির মুখে ছিলেন বলে তার ঘনিষ্ঠরা জানিয়েছেন।

বাচ্চু হত্যাকাণ্ডের পর সোমবার রাতেই ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন ঢাকা রেঞ্জ ডিআইজি চৌধুরী আব্দুল্লাহ আল মামুন। তিনি বাচ্চুর দুই স্ত্রী এবং সন্তানদের সঙ্গে কথা বলেন।

এ সময় তার সঙ্গে ছিলেন মুন্সীগঞ্জের পুলিশ সুপার মোহাম্মদ জায়েদুল আলম, সিরাজদিখান সার্কেল সিনিয়র এএসপি আসাদুজ্জামান, ডিবির ওসি ইউনুচ আলী, টঙ্গীবাড়ি থানার ওসি মো. ইয়ারদৌস হাসান, সিরাজদিখান থানার ওসি মো. আবুল কালাম এবং ঢাকা থেকে আসা কাউন্টার টেরিরিজম এর একটি দল।

বিডিনিউজ

Leave a Reply