সিরাজদিখানে পূর্ব শত্রুতার জেরে দুই পক্ষের সংঘর্ষ, বাড়ীঘর ভাংচুর, আহত ৪

নাছির উদ্দিন : সিরাজদিখানে পূর্ব শত্রুতার জেরে দুই পক্ষের সংঘর্ষ, ৪ জন আহতসহ বাড়ীঘর ভাংচুরের ঘটনা ঘটেছে। উপজেলার কোলা ইউনিয়নের নন্দনকোনা গ্রামের শহিদুল শেখ ও একই গ্রামের মোঃ বাচ্চু মিয়া এই দুই পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষ বাধে। এ সময় দুই পক্ষের জনি (২৬), বাছের (৪০), সুজন (৩০) ও মামুন (৩৫) আহত হয়েছে। শুক্রবার সন্ধ্যায় কোলা ইউনিয়নের নন্দনকোনা গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায়, দীর্ঘদিন যাবৎ নন্দনকোনা গ্রামের শহিদুল শেখ এবং বাচ্চু মিয়ার সাথে জমিজমা নিয়ে বিরোধ চলছিল। সেই সূত্র ধরে শুক্রবার সন্ধায় দুই পক্ষের মধ্যে মারামারি শুরু হয়। বাচ্চু মিয়ার শ্যালক জনিসহ ৪/৫ জন সিরাজদিখানে একটি বিয়ের অনুষ্ঠান শেষে বাড়ি ফেরার পথে নন্দনকোনা চৌরাস্তায় আসলে শহিদুলের লোকজন হামলা করে। এ সময় জনি (২৬) এর মাথা ফেটে যায়। খবর পেয়ে স্বজনরা এসে তাকে ষোলঘর হাসপাতালে ভর্তি করে। পরে ইট পাটকেল নিক্ষেপ এবং টেটা বল্লম নিয়ে দু পক্ষের মহড়া শুরু হয়। খবর পেয়ে সিরাজদিখান থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। গত ৭/৮ দিন আগে বাচ্চু মিয়ার মোটর সাইকেল শহিদুলের লোকজন ভাঙচুর করে পানিতে ফেলে দেয়।

শহিদুল শেখ জানান, পূর্ব শত্রুতার জেরে আমার বাড়িঘর ভাংচুর করে বাচ্চু মেম্বারের ভাতিজাসহ তার সন্ত্রাসী বাহিনীর লোকজন। আমার ব্যবসার ৩ লাখ টাকা ঘরে ছিল। তারা বাড়িঘর ভাংচুর করে সেই টাকা নিয়ে যায়। আমার বাড়ীতে থাকা মহিলাদেরকেও মারধর করে তারা।

কোলা ১নং ওয়ার্ড ইউপি সদস্য মোঃ বাচ্চু মিয়া জানান, আমি ঢাকায় ছিলাম থানা থেকে পুলিশ আমাকে ফোন দিয়ে মারামারির ঘটনা জানায়। আমার শ্যালকের মাথায় শহিদুলের লোকজন চাপাটি দিয়ে কোপ দেয়। সে রক্তাক্ত গুরুতর জখম হয়। বর্তমানে শ্রীনগর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি রয়েছে। আমাদের লোকজন আহত ৩ জনকে নিয়ে হাসপাতালে ব্যস্ত ছিল। শহিদুলরা ভাবছে জনির মাথা দুই ভাগ হয়েছে। ভয়ে তারা বাড়ি এসে নিজেরাই ভাঙচুর করে। জনির চাচাত ভাই হারুন অর রশিদ বাদী হয়ে থানায় অভিযোগ করেছেন।

সিরাজদিখান থানার ওসি (প্রশাসন) আবুল কালাম জানান, প্রথমে শহিদুলের লোকজন বাচ্চু মিয়ার আত্মীয়কে মারধর করে, পরে বাচ্চু মিয়ার লোকজন শহিদুলের বাড়িতে হামলা চালায়। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পুলিশ গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। দুই পক্ষই দোষী। দুই পক্ষের অভিযোগ পেয়েছি। মামলা হবে। #

Leave a Reply