৯৯৯-তে ফোনকল, যেভাবে বাঁচলেন ফেরির ৩০০ যাত্রী

মুন্সীগঞ্জে জাতীয় জরুরি সেবা নম্বর ৯৯৯-তে একটি কলেই ডুবতে শুরু করা একটি যাত্রীবাহী ফেরির ৩০০ জন যাত্রী প্রাণে বেঁচেছেন। ৭ আগস্ট, মঙ্গলবার সকাল ১০টা ৫ মিনিটে মুন্সীগঞ্জের মাওয়া-কাঁঠালবাড়ী নৌ-রুটে এ ঘটনা ঘটে।

পুলিশ হেডকোয়াটার্সের সহকারী মহাপরিদর্শক (এআইজি, মিডিয়া অ্যান্ড পিআর) মো. সোহেল রানা বলেন, সকালে ‘৯৯৯’-এ কল করে সোহাগ নামের এক যুবক জানান, দুর্ঘটনাকবলিত হয়ে তাদের বহনকারী ফেরিটি (রানীক্ষেত) ডুবতে যাচ্ছে।

সোহেল রানা বলেন, ‘ফোন পেয়ে কল সেন্টারে কর্তব্যরত পুলিশ সদস্য বিষয়টি দ্রুত কোস্টগার্ড, নৌ-পুলিশ ও ফায়ার সার্ভিসকে জানান। পরে সকল বাহিনীই দ্রুততম সময়ের মধ্যে ঘটনাস্থলে পৌঁছে ডুবতে থাকা ফেরির ৩০০ জন যাত্রীকে উদ্ধার করেন।’

পুলিশের এই সহকারী মহাপরিদর্শক আরও বলেন, ‘মুন্সীগঞ্জ ও শ্রীনগর ফায়ার স্টেশনের সদস্যরা একটি দল ট্রলার ও পাম্প মেশিন সঙ্গে নিয়ে ঘটনাস্থলে পৌঁছে প্রায় ডুবে যাওয়া ফেরি থেকে পানি নিষ্কাশন শুরু করে। এ সময় ফেরিতে ৯টি ট্রাক ও ৬টি বাস ছিল।’

কোনো হতাহত বা ফেরির ক্ষয়ক্ষতি ছাড়াই ফেরিটি যাত্রীদের নিয়ে কাঁঠালবাড়ি পৌঁছায় বলেও জানান পুলিশের এই কর্মকর্তা।

প্রিয়

Leave a Reply