সিরাজদিখানে আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে দুই ইউনিয়নের ৭ গ্রামের দুই গ্রুপের সংঘর্ষে টেটাবিদ্ধ ৩জন

পুলিশসহ আহত ১৫; পুলিশের পিকাপসহ শতাধিক বাড়িঘর ভাঙচুর
নাছির উদ্দিন : সিরাজদিখানে আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে ২ ইউনিয়নের ৭ গ্রামে দুই পক্ষের সংঘর্ষে পুলিশসহ ১৫ জন আহত হয়েছে। এ সময় নুরবাউল গ্রুপ ও নাছির মোল্লা মেম্বার গ্রুপের দুই পক্ষের ৩ জন টেটাবিদ্ধ হয়। তাদের গুরতর আহত অবস্থায় ঢাকা মেডিকেলে পাঠানো হয়েছে। বুধবার দিবগত রাত সাড়ে ৯ টা থেকে এই সংঘর্ষ শুরু হয়ে গতকাল বৃহস্পতিবার সকাল ১১ টা পর্যন্ত চলে। খবর পেয়ে রাত ১০টা দিকে থানা পুলিশ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করতে গেলে ৩ জন পুলিশ কনস্টেবল আহত হয় এবং পুলিশের পিকআপ ভ্যানসহ শতাধিক বাড়িঘর ভাঙচুরের ঘটনা ঘটে।

ঘটনাটি ঘটেছে বালুচর ইউনিয়নের মোল্লাকান্দি, রাজনগর, খাসনগর, আকবরনগর, খাশমহল ও লতব্দি ইউনিয়নের ভাষানচর ও দোসরপাড়া গ্রামে। গতকাল বেলা ১১ টার দিকে জেলা ডিবি পুলিশসহ সিরাজদিখান থানা, শ্রীনগর থানাা ও শেখরনগর তদন্ত কেন্দ্রের পুলিশ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। এ সময় দুই পক্ষের নুরুবাউল ও নাছির মোল্লা মেম্বারসহ ১৫ জনকে আটক করেছে পুলিশ। এ ব্যাপারে সিরাজদিখান থানা এস আই সোহেল রানা বাদী হয়ে ৫৮ জনসহ অজ্ঞাত ২ শত জনের বিরুদ্ধে সিরাজদিখান থানায় একটি মামলা করেছে। এলাকায় থমথমে অবস্থা বিরাজ করছে। অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন রয়েছে।

পুলিশ ও এলাকাবাসী সূত্রে জানাযায়, আধিপত্য বিস্তার নিয়ে দীর্ঘ ২০/২২ বছর ধরে প্রতি দু এক বছরের মধ্যে দু একবার এই সংঘর্ষ বাধে। গত ২ মাস আগে রমজানের ঈদের দিনসহ ৩ দিন সংঘর্ষের মহড়া চলে। পুলিশ দুই পক্ষকে ডেকে থানায় এনে লিখিত নেয় কেউ যাতে ঝামেলা করতে না পারে। এছাড়া উপজেলা চেয়ারম্যানের অফিসে দুই পক্ষকে একটি মিমাংশা করা হয়। দুই মাস না যেকেই আবার উত্তেজনা সৃষ্টি হয় এবং এই সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। গতকাল বৃহস্পতিবার বালুচর বাজারে প্রথমে সংঘর্ষ বাধে এর পর কয়েকটি গ্রামে দুই পক্ষের সমর্থকদের মাঝে ছড়িয়ে পরে। টেটাবিদ্ধ গরুতর আহত হলো পুলিশ সদস্য এসআই সোহেল রানা, এএসআই আনোয়ার হোসেন, এএসআই সোহাগ মিয়া ও আওলাদ মোল্লা, তকদির মোল্লা, নাছির মোল্লা মেম্বার। আরো আহতরা হলো ইসলাম বেপারী, আলেক মোল্লা প্রমুখ।

সিনিয়র সহকারি পুলিশ সুপার (সিরাজদিখান সার্কেল) আসাদুজ্জামান ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন দুইপক্ষের দুই নেতাসহ ১৫ জনকে আটক করা হয়েছে। ৫৮জনসহ ২শতজনের বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে। ঘটনাস্থলে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন রয়েছে।

Leave a Reply