নারায়ণগঞ্জে নিজ ফ্ল্যাটে এজিবি কর্মকর্তার লাশ উদ্ধার

নারায়ণগঞ্জের ফতুল্লায় নিজ ফ্ল্যাট থেকে সাবেক এজিবি কর্মকর্তা শাহাদাৎ হোসেনের (৬৫) লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। নিহতের শরীরের বিভিন্ন স্থানে আঘাতের নীলা ফুলা ও রক্তাক্ত জখম রয়েছে। শাহাদাৎ হোসেন মুন্সিগঞ্জ সদরের আশুরান গ্রামের মৃত সামসুল হক মোল্লার ছেলে।

শনিবার (১ আগস্ট) রাত ১২টায় ফতুল্লার জামতলা ধোপাপট্রি এলাকার সোহাগ মিয়ার ভাড়া দেয়া বাড়ির তিন তলার ফ্ল্যাট থেকে লাশটি উদ্ধার করা হয়। এরপর ময়নাতদন্তের জন্য সদর হাসপাতাল মর্গে নিয়ে যায় পুলিশ।

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানান, শাহাদাৎ ও তার স্ত্রীর সঙ্গে দীর্ঘদিন ধরে পারিবারিক বিরোধ চলে আসছে। সম্প্রতি শাহাদাৎ তার স্ত্রী বিলকিস বেগমের বিরুদ্ধে ফতুল্লা মডেল থানায় একটি জিডিও করেন।

ঘটনাস্থলে যাওয়া ফতুল্লা মডেল থানার পরিদর্শক (তদন্ত) শাহজালাল জানান, নিহতের শরীরে আঘাতের অংসখ্য দাগ রয়েছে। ময়নাতদন্তের পর মৃত্যুর কারণ জানা যাবে। এছাড়া তদন্ত চলছে হত্যাকারীদের সনাক্তে।

নিহতের স্ত্রী বিলকিস বেগম জানান, ঢাকার সেগুনবাগিচায় এজিবি অফিসের সিনিয়র অডিট অফিসার ছিলেন শাহাদাৎ হোসেন। ৫ বছর আগে তিনি চাকুরি থেকে অবসরে আসেন। আমাদের সংসারে ২ মেয়ে এক ছেলে রয়েছে। ২৯ আগস্ট বিকালে শাহাদাতকে নারায়ণগঞ্জ লঞ্চঘাট থেকে মুমূর্ষ অবস্থায় উদ্ধার করে বাসায় নিয়ে আসি। সন্ধ্যায় হঠাৎ সে মারা যায়।

ফতুল্লা মডেল থানার পরিদর্শক (তদন্ত) শাহজালাল জানান, নিহতের শরীরে আঘাতের চিহ্ন আছে। ময়নাতদন্তের পরে হত্যা না স্বাভাবিক মৃত্যু সেটা নিশ্চিত হওয়া যাবে। লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য ১০০ শয্যাবিশিষ্ট জেনারেল হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে।

খোলা কাগজ

Leave a Reply