সিরাজদিখানে ১৮ বছর না হতেই বিয়ের পিঁড়িতে দশম শ্রেণির ছাত্রী

সিরাজদিখানে ইউপি চেয়ারম্যানের উপস্থিতিতে দশম শ্রেণির স্কুল ছাত্রীকে বিয়ের পিঁড়িতে বসতে হয়েছে। গতকাল রবিবার টেলিফোনের মাধ্যমে প্রবাসী বরের সঙ্গে ওই ছাত্রীর বিয়ে সম্পন্ন হয়। উপজেলার বয়রাগাদি উচ্চ বিদ্যালয়ের ছাত্রী মৌসুমী আক্তার ও মালয়েশিয়া প্রবাসী রাসেল তালুকদারের মধ্যে টেলিফোনে এ বিয়ে সম্পন্ন হয়।

ওই ছাত্রী উপজেলার ছোট পাউলদিয়া গ্রামের শুভ কাজীর মেয়ে। বর রাসেল তালুকদার একই গ্রামের আমজাদ তালুকদারের ছেলে।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক বয়রাগাদি উচ্চ বিদ্যালয়ের কয়েকজন শিক্ষক জানিয়েছেন- কনে স্কুল ছাত্রী মৌসুমী আক্তারের বাড়িতে এ বিয়ের আয়োজন করা হয়। ১৮ বছর তথা প্রাপ্ত বয়স না হওয়া সত্বেও বয়রাগাদি ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আলাউদ্দিন গাজীর উপস্থিতিতে এ বিয়ে সম্পন্ন করা হয়েছে।

শিক্ষকদের দাবী অনুযায়ী, ওই ছাত্রীর বয়স ১৬ পেরোয়নি। অথচ ১৮ বছর দেখিয়ে তাকে বিয়ের পিঁড়িতে জোর পূর্বক বসানো হয়।

ইউপি চেয়ারম্যান আলাউদ্দিন গাজী তার উপস্থিতিতে টেলিফোনে বিয়ের কথা স্বীকার করেছেন। তিনি দাবী করেন- ওই ছাত্রীর ১৮ বছর পূর্ণ হয়ে গেছে। বেশী বয়সে স্কুলে যাওয়া শুরু করে। কাজেই দশম শ্রেণির ছাত্রী হলেও সে প্রাপ্ত বয়স্ক।

মুন্সিগঞ্জ নিউজ

Leave a Reply