মাদক সংশ্লিষ্টতার তদন্ত চলাকালে ওসির বদলি

মাদক সেবন ও ব্যবসার সঙ্গে জড়িত থাকার অভিযোগের তদন্ত চলাকালে মুন্সীগঞ্জের টঙ্গীবাড়ী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. ইয়ারদৌস হাসানকে বদলি করা হয়েছে।

তাকে টঙ্গীবাড়ী থানা থেকে ইন্ডাস্ট্রিয়াল পুলিশে দেওয়া হয়েছে। জেলা পুলিশ সুপার মো. জায়েদুল আলম এতথ্য নিশ্চিত করে জানান, বরিশাল জেলার কোতোয়ালি থানার ওসি আওলাদ হোসেনকে টঙ্গীবাড়ী থানার দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে।

মো. ইয়ারদৌস হাসানের বিরুদ্ধে মাদক সেবন ও ব্যবসার সঙ্গে জড়িত থাকার অভিযোগ পাওয়ার পর গত ৪ সেপ্টেম্বর পুলিশ সুপারের নির্দেশে একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়। তদন্ত কমিটির একমাত্র সদস্য হচ্ছেন টঙ্গীবাড়ী ও সিরাজদিখান সার্কেলের এএসপি মো. আসাদুজ্জামান।

সদ্য বদলি হওয়া ওসি ইয়ারদৌস হাসান মাদকের সঙ্গে জড়িত থাকার অভিযোগ নাকচ করে বলেন, “এটি স্বাভাবিক একটি বদলির আদেশ। আমার বিরুদ্ধে কোনো অভিযোগ প্রমাণ হয়নি। তদন্ত যদিও শেষ হয়নি কিন্তু বদলির সঙ্গে এর কোনো সম্পর্ক নেই।”

টঙ্গীবাড়ী ও সিরাজদিখান সার্কেলের এএসপি মো. আসাদুজ্জামান জানান, কমিটিকে তদন্তের জন্য কোনো নির্ধারিত দিন বেধে দেওয়া হয়নি। তদন্ত শেষ হতে আরো সময় লাগবে, এটি দীর্ঘ প্রক্রিয়া। তার বদলির বিষয়ে এর কোন সংশ্লিষ্টতা নেই। ওসি ইয়ারদৌস হাসানের বদলি তদন্তে কোনো প্রভাব ফেলবে না।

জেলা পুলিশ সুপার মো. জায়েদুল আলম বাংলানিউজিকে বলেন, মাদকের সঙ্গে জড়িত থাকার অভিযোগ এনে স্থানীয় একটি পত্রিকা ওসি মো. ইয়ারদৌস হাসানের বিরুদ্ধে সংবাদ প্রকাশ করে। ওই সংবাদের অভিযোগের সত্যতা যাচাইয়ের জন্য প্রাথমিকভাবে তদন্তের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। তদন্ত শেষ হতে আরো সময় লাগবে। তবে তার বদলির সঙ্গে এ অভিযোগের কোনো সংশ্লিষ্টতা নেই। এটি পুলিশের রুটিন ওয়ার্কের আওতায় পড়ে।

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর

Leave a Reply