প্রেমিকা চলে যাওয়ার পর গলায় ফাঁস দিল হৃদয়

রাজধানীর বাড্ডার সাঁতারকুল এলাকার একটি বাসায় গলায় ফাঁস দিয়ে হৃদয় আহমেদ (১৭) নামের এক কিশোর আত্মহত্যা করেছে। আজ মঙ্গলবার সকাল ৭টার দিকে সাঁতারকুল রোড পশ্চিম পদরদিয়া এলাকার মজিবরের ভাড়া বাড়িতে এই ঘটনা ঘটে। অচেতন অবস্থায় তাকে উদ্ধার করে ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক সকাল ৯টার দিকে মৃত ঘোষণা করেন।

মুন্সীগঞ্জ সদর উপজেলার বিহাইন্না গ্রামের আবদুল মোতালেবের ছেলে হৃদয়। তিন ভাইবোনের মধ্যে মেজ সে। মজিবরের ওই টিনশেড বাড়িতে পরিবারসহ ভাড়া থাকত তারা। হৃদয় আগে লেখাপড়া করত।

হৃদয়ের বড় ভাই মো. রিপসান জানান, পাশাপাশি বাসার ভাড়াটিয়া এক কিশোরীর সঙ্গে প্রেমের সম্পর্ক ছিল তার। আজ সকালে ওই মেয়েটি হৃদয়ের রুমে আসে। রুমের দরজা বন্ধ করে ভেতরে কথা বলে তারা। একপর্যায়ে তিনি তাদের ডাকাডাকি করলে ভেতরে হৈচৈ ও ঝগড়াঝাঁটির শব্দ শুনতে পান। এর কিছুক্ষণ পর তানজিনা রুম থেকে বেরিয়ে যায়। তবে হৃদয় আবার রুমের দরজা বন্ধ করে দেয়। অনেক ডাকাডাকির পরও সে দরজা না খোলায় দরজা ভেঙে ভেতরে বাঁশের আড়ার সঙ্গে পরনের শার্ট পেঁচিয়ে গলায় ফাঁস লাগিয়ে ঝুলে থাকতে দেখেন হৃদয়কে। পরে তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যান।

ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল পুলিশ ক্যাম্পের দায়িত্বরত উপপরিদর্শক (এসআই) বাচ্চু মিয়া মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করেন। তিনি জানান, লাশ মর্গে পাঠানো হয়েছে আর সংশ্লিষ্ট থানায় বিষয়টি জানানো হয়েছে।

এনটিভি

Leave a Reply