শ্রীনগরে মদ খেয়ে মাতলামির ঘটনায় হিন্দুদের দুই গ্রুপের মধ্যে উত্তেজনাঃ মুর্তি ভাংচুরের অভিযোগ

আরিফ হোসেন: শ্রীনগরে লক্ষী পূজার দশমীর দিন মদ খেয়ে নারীদের সাথে মাতলামির ঘটনায় হিন্দুদের দুই গ্রুপের মধ্যে উত্তেজনা বিরাজ করছে। এনিয়ে এক পক্ষ আরেক পক্ষের বিরুদ্ধে মুর্তি ভাংচুরের অভিযোগ এনে রবিবার সকালে শ্রীনগর থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন।

এর আগে গত শুক্রবার রাতে উপজেলার বীরতারা ইউনিয়নের চারিগাও গ্রামে লক্ষী পূজার দশমীর অনুষ্ঠানে মদ খেয়ে নারীদের সাথে মাতলামির ঘটনায় উত্তেজনা দেখা দেয়। এর পরদিন ওই মন্দিরে মুর্তি ভাংচুরের ঘটনা ঘটে।

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানায়, ওই গ্রামের শ্যামল মন্ডলের বাড়িতে দশমী উপলক্ষে মন্দিরে অনুষ্ঠান চলছিল। এসময় পাশর্^বর্তী সিরাজদিখান উপজেলার কাজিশাল গ্রামের ভবেশ পোদ্দার,সুদেপ পোদ্দার ও গৌরাঙ্গ পোদ্দার সহ কয়েকজন মিলে রাত দেড়টার দিকে মদপান করে ওই বাড়ির নারীদের সাথে মাতলামি করার সময় বাধা দিলে দুই গ্রুপে উত্তেজনা দেখা দেয়। এসময় অনুষ্ঠান স্থলের চেয়ার টেবিল ভাংচুরের ঘটনা ঘটে। পরদিন শনিবার এঘটনায় স্থানীয় গন্যমান্য ব্যক্তিবর্গ ও বীরতারা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আজিম হোসেন খানের উপস্থিতিতে সালিশ মিমাংসা হয়। কিন্তু ওই দিন রাতেই ফের দুই পক্ষের মধ্যে হাতা হাতির ঘটনা ঘটে। রবিবার সকালে মন্দিরের মুর্তির মাথা ভাংগা অবস্থায় পাওয়া যায়। এঘটনায় শ্যামল মন্ডল বাদী হয়ে শ্রীনগর থানায় ভবেশ পোদ্দার,সুদেপ পোদ্দার ও গৌরাঙ্গ পোদ্দার সহ কয়েক জনের বিরুদ্ধে মুর্তি ভাংচুরের লিখিত অভিযোগ দেন।

অভিযোগটির তদন্তকারী কর্মকর্তা শ্রীনগর থানার এসআই মোদাচ্ছের জানান, ঘটনাটি স্পর্শকাতর। পুলিশ তদন্ত করে দেখছে।

Leave a Reply