সিরাজদীখানে পরকীয়ার অপবাদ সহ্য করতে না পেরে গৃহবধুর আত্মহত্যা

মুন্সীগঞ্জের সিরাজদীখানে এক গৃহবধু গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেছে। গতকাল শনিবার দিবাগত রাত ১২ টার দিকে উপজেলার কোলা ইউনিয়নের নন্দনকোনা গ্রামের আলমগীর খানের মেয়ে শান্তা আক্তার (২১) নামে ওই গৃহবধু বাবার বাড়ীতে আম গাছের সাথে গলায় ওরনা পেচিয়ে আত্মহত্যা করে। খবর পেয়ে সিরাজদীখান থানার এ এস আই নাজমুল ঘটনাস্থল থেকে লাশ উদ্ধার করেন।

পারিবারিক সূত্রে জানা যায়, কয়েক বছর পূর্বে ঢাকা জেলার কেরানীগঞ্জের বেড়াপাড়া ওয়ার্ডের প্রবাসী আলাউদ্দিনের সাথে শান্তার ইসলামী সরিয়ত মোতাবেক বিয়ে হয়। স্বামী প্রবাসে থাকার অজুহাতে শান্তা আক্তারের দেবর সোহেলের সাথে পরকীয়া সম্পর্কের অভিযোগ এনে তার শ্বশুর বাড়ীর লোকজন গত শুক্রবার শান্তার পিতার বাড়ীতে পাঠিয়ে দেয়। এ ঘটনায় শান্তা আক্তার মিথ্যা অপবাদ সহ্য করতে না পেরে আতœহত্যা করেছে বলে অভিযোগ শান্তার পরিবারের। শান্তার খালা জানান, শ্বশুর বাড়ীর লোকজন শান্তার উপর শারীরিক ও মানসিক নির্যাতন করত। তার শরীরে আঘাতের চিহ্ন ছিল। তার সংসারে একটি পুত্র ও একটি কন্যা সন্তান রয়েছে।
সিরাজদীখান থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ ফরিদউদ্দিন জানান, লাশ উদ্ধার করে মুন্সীগঞ্জ জেনারেল হাসপাতাল মর্গে প্রেরন করা হয়েছে। এ বিষয়ে থানায় একটি অপমৃত্যু মামলা হয়েছে।

ইমতিয়াজ বাবুলের ফেবু থেকে

Leave a Reply