মুন্সীগঞ্জে শীতকালীন সবজি আবাদে ব্যস্ত কৃষক

চলতি মৌসুমে মুন্সীগঞ্জ জেলায় তিন হাজার ৯৪০ হেক্টর জমিতে শীতকালীন সবজি আবাদের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছে। উৎপাদনের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছে ৯৭ হাজার ৯৪৩ টন সবজি। গত বছর জেলায় সবজি উৎপাদিত হয়েছিল এক লাখ ৭ হাজার ৭০ টন। শীতকালীন সবজির চারা রোপণে এখন জেলার কৃষকরা ব্যস্ত সময় পার করছেন। অক্টোবরের মাঝামাঝি থেকে শীতকালীন বিভিন্ন সবজির চারা রোপণ শুরু করেছেন তারা।

জানা গেছে, উঁচু এলাকা হওয়ায় সদর উপজেলার পঞ্চসার, রামপাল ও বজ্রযোগিনী ইউনিয়নে শীতকালীন সবজির আবাদ বেশি হয়। এ ছাড়া জেলার বিভিন্ন এলাকায় শীতকালীন সবজি আবাদের জন্য জমিতে চাষ দিচ্ছেন কৃষক।

কয়েকজন কৃষক জানান, আশ্বিন, কার্তিক ও অগ্রহায়ণ- এই তিন মাস আগাম শীতকালীন সবজি আবাদ করা হয়। চারা একটু বড় হলে জমিতেই তা বিক্রি করে দেওয়া হয়।

জেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর সূত্রে জানা গেছে, চলতি মৌসুমে ২৬৬ হেক্টর জমিতে ফুলকপি, ১১১ হেক্টর জমিতে বাঁধাকপি, ৪৯২ হেক্টর জমিতে মিষ্টি কুমড়া, ৬২৭ হেক্টর জমিতে লাউ, ১৯৫ হেক্টর জমিতে বেগুন ও ২১৮ হেক্টর জমিতে টমেটো আবাদ করা হবে। জেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপপরিচালক হুমায়ুন কবীর জানান, প্রতিবছরই মুন্সীগঞ্জ সদর উপজেলার চাষিরা আগাম সবজি চাষ করেন। বিশেষ করে সদর উপজেলার পঞ্চসার, রামপাল ও বজ্রযোগিনী ইউনিয়ন তিনটি উঁচু এলাকা হওয়ায় ক্ষয়ক্ষতির আশঙ্কা কম থাকে। তাই সবজি চাষে এসব এলাকার কৃষক উৎসাহ বোধ করেন।

সমকাল

Leave a Reply