শ্রীনগরে চলছে উপজেলা নির্বাচনকে ঘিরে নানা গুঞ্জন

শ্রীনগরে চলছে আগামী উপজেলা নির্বাচনকে ঘিরে নানা গুঞ্জন। একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের পরে বাংলাদেশ নির্বাচন কমিশন সচিবের এক ঘোষনার পর থেকেই শ্রীনগর উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে আ.লীগের সম্ভাব্য প্রার্থী হিসেবে আত্মপ্রকাশ করছেন অনেকেই। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে চলছে সম্ভাব্য প্রার্থীদের পক্ষে সমর্থনকারীদের প্রচার-প্রচারনা। অনেকেই তাদের চেয়ারম্যান ও ভাইস চেয়াম্যান প্রার্থীর পক্ষে সমর্থন ও দোয়া চাচ্ছেন।

এর মধ্যে বিভিন্ন চায়ের দোকানে আড্ডায় উপজেলা নির্বাচনকে ঘিরে মানুষের মুখে শুরু হয়েছে আলাপ আলোচনা। এতে আ.লীগ অনেকটা সরব হয়ে উঠলেও চুপচাপ রয়েছে বিএনপি। ১৪টি ইউনিয়ন পরিষদ নিয়ে গঠিত শ্রীনগর উপজেলা। উপজেলা পরিষদের বর্তমান চেয়ারম্যান আলহাজ্ব মমিন আলী, ভাইস চেয়ারম্যান আলহাজ্ব সেলিম হোসেন খান, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান জাহানারা বেগম। তারা তিনজনই বিএনপির রাজনীতির বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ পদে রয়েছে। গত উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে আ.লীগ মনোনীত চেয়ারম্যান ও ভাইস চেয়ারম্যান প্রার্থীদের পরাজিত করে বিএনপি মনোনীত প্রার্থীরা বিজয়ী হয়।

উপজেলার সম্ভব্য চেয়ারম্যান প্রার্থী হিসেবে নাম শুনা যাচ্ছে উপজেলা আ.লীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি ও উপজেলা পরিষদের সাবেক ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান আলহাজ্ব সেলিম আহমেদ ভূইয়া, উপজেলা আ.লীগের সাধারণ সম্পাদক হাজী তোফাজ্জল হোসেন, কেন্দ্রীয় যুবলীগের সহ-সম্পাদক মো. জাকির হোসেন, মুন্সিগঞ্জ জেলা যুবলীগের অর্থ বিষয়ক সম্পাদক মশিউর রহমান মামুন, ষোলঘর ইউপি চেয়ারম্যান আলহাজ্ব মো. আজিজুল ইসলাম। ভাইস চেয়ারম্যান পদে সম্ভব্য প্রার্থী হিসেবে নাম শুনা যাচ্ছে উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক ও উপজেলা এবং শ্রীনগর সরকারি কলেজ শাখা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি ওয়াহিদুর রহমান জিঠু।

এ বিষয়ে আলহাজ্ব সেলিম আহমেদ ভূইয়া বলেন, আমি নির্বাচন করার জন্য ইচ্ছা পোষন করেছি। বিগত দিনেও আমি নির্বাচনে অংশগ্রহন করেছি। দল যদি আমাকে মনোনীত করে তাহলে নির্বাচন করবো। হাজী তোফাজ্জল হোসেন জানান, আগামী শনিবার উপজেলা আ.লীগের বর্ধিত সভায় নিজের প্রার্থীতা ঘোষনা দেবো। আমি নির্বাচন করবো। মশিউর রহমান মামুন জানান, দলীয় নেতাকর্মীরা যদি আমাকে সমর্থন করে তাহলে নিবার্চনে অংশ গ্রহন করবো। মো. জাকির হোসেন বলেন, আমার ইচ্ছা রয়েছে, দলীয় সিদ্ধান্ত পেলে প্রার্থী হবো। ভাইস চেয়ারম্যান সম্ভব্য প্রাথী ওয়াহিদুর রহমান জিঠু বলেন, গত নির্বাচনেও আমি প্রার্থী হিসেবে অংশ গ্রহন করার জন্য প্রস্তুতি নিয়েছিলাম। দলীয় সিদ্ধান্তের বাহিরে যেয়ে নির্বাচনে অংশ গ্রহন করিনি। আমার বিশ্বাস এবার দল আমাকে মনোনীত করবেন।

বর্তমান চেয়ারম্যান ও জেলা বিএনপির সাবেক সহ-সভাপতি আলহাজ্ব মমিন আলী বলেন, আমি রানিং চেয়ারম্যান হিসেবে রয়েছি। আগামী নির্বাচনের বিষয়ে এখনো কোন চিন্তা ভাবনা করিনি। ভাইস চেয়ারম্যান আলহাজ্ব সেলিম হোসেন খান বলেন, জনগণ যদি আমাকে চায় তাহলে নির্বাচনে প্রার্থী হবো।

এ বিষয়ে শ্রীনগর উপজেলা বিএনপির সভাপতি মো. শহিদুল ইসলামের কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে প্রার্থীতার বিষয়ে কেন্দ্রীয় ভাবে এখনো কোন নির্দেশ আসেনি। উপজেলা বিকল্পধারার সাধারণ সম্পাদক লক্ষন মন্ডল বলেন, বিকল্পধারার পক্ষ থেকে উপজেলার চেয়ারম্যান প্রার্থীর ঘোষনা এখনো আসেনি। তবে ভাইস চেয়ারম্যান পদে আমি নির্বাচন করার আশা পোষন করছি। এছাড়াও উপজেলা মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদেও বিভিন্ন দলের বেশ কয়েকজন মহিলা নেত্রী সম্ভব্য প্রার্থী হিসেবে রয়েছেন বলে সূত্রমতে জানা যায়।

নিউজজি

Leave a Reply