১৪ বছর ধরে শুয়ে কাটাচ্ছেন হালিম

মো. আব্দুল হালিম ব্যাপারি। এক বুক স্বপ্ন নিয়ে পরিবার পরিজন ছেড়ে পাড়ি জমান সৌদি আরবে। পরিবারকে ঘিরে ছিল কতই না স্বপ্ন। আর সে সব স্বপ্ন বাস্তবায়নের জন্যই বেছে নেন কষ্টের প্রবাস জীবন। কিন্তু স্বপ্ন বাস্তবায়ন হওয়ার পূর্বেই ভেঙে যায়। ২০০৫ সালে সৌদি আরবে সড়ক দুর্ঘটনায় তার কোমড়ের নিচ থেকে অবশ হয়ে যায়। তারপর থেকে দীর্ঘ ১৪ বছর খাটে শুয়ে কাটাচ্ছেন।

চিকিৎসার জন্য চেষ্টা চালালেও আর্থিক সমস্যার কারণে চিকিৎসা করাতে পারেননি তিনি। তার বাবা মৃত মো. রুপচান ব্যাপারি। মুন্সীগঞ্জ সদর উপজেলার আধারা ইউনিয়নের জাজিরা পুর্বপারা গ্রামে বাস করেন তিনি।

তিনি বলেন, গত ১৪ বছর ধরে আমি এই অবস্থায় একটি ঘরের মধ্যেই পড়ে আছি। আমার উন্নত চিকিৎসার জন্য বিদেশ যেতে চাই। চিকিৎসার ব্যয় বাবদ অনেক টাকার প্রয়োজন। কিন্তু সে সামর্থ্য আমার নেই। তাই সমাজের বৃত্তবান ও দানশীল ব্যক্তিদের নিকট আর্থিক সহযোগিতা চাই।

দৈনিক অধিকার

Leave a Reply