শ্রীনগরে ইদুরের ট্যাবলেট খাওয়ায় গৃহবধুর মৃত্যু

শ্রীনগর উপজেলায় ইদুরের ট্যাবলেট খাওয়ার পাখি আক্তার নামে এক গৃহবধুর মৃত্যু হয়েছে। রোববার বিকালে ঢাকার মিটফোর্ড হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, উপজেলার কুকুটিয়া ইউনিয়নের পাঁচলদিয়া গ্রামের আবু কালামের স্ত্রী পাখি আক্তার স্বামীর বাড়িতে পারিবারিক কলহের জের ধরে গত ২১ জুলাই রোববার সকালে ইদুর নিধনের ট্যাবলেট খেয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা করে। এলাকাবাসী অসুস্থ্য অবস্থায় তাকে উদ্ধার করে প্রথমে পার্শ্ববর্তী সিরাজদিখান উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যায়। প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে কর্তব্যরত ডাক্তার গৃহবধু পাখিকে উন্নত চিকিৎসার জন্য মিটফোর্ড হাসপাতালে পাঠান। পরে বিকালের দিকে মিটফোর্ড হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়।

স্থানীয়রা আরো জানান, কয়েকটি এনজিও’র লোনের টাকায় স্বামী আবু কালামকে বিদেশে পাঠিয়ে ছিলো পাখি। তার কয়েক মাস পরেই বিদেশে (দুবাই) কাজ না পেয়ে দেশে এসে পরে আবু কালাম। আর্থিক সংকটের কারণে তাদের সংসারে পারিবারিক কলহ বেড়ে যায়। কিস্তির টাকা পরিশোধ করতে না পারার কারণে গৃহবধু পাখি হতাশায় ভুগছিলেন। এ কারণে ইদুরের ট্যাবলেট খেয়ে আত্মহত্যার পথ বেছে নিয়েছেন বলে স্থানীয়রা ধারনা করছে।

পাঁচলদিয়া গ্রামের মো. শাহ আলম সরদার, আনোয়ার শেখ, মো. মামুন হাওলাদার রোববার রাত সাড়ে ১০টার দিকে জানান, বিকালের দিকে আবু কালামের স্ত্রী পাখি আক্তারের মৃত্যুর খবর শুনতে পাই। মরদেহ আনার প্রস্তুতি চলছে। তাদের সংসারে দুই ছেলে ও এক মেয়ে সন্তান রয়েছে। পাখি আক্তার একই ইউনিয়নের পার্শ্ববর্তী বাগবাড়ি গ্রামের ইয়াকুব আলীর মেয়ে।

নিউজজি

Leave a Reply