সুখবাসপুরবাসীর র্দীঘ দিনের আশা পূরণ

জাহাঙ্গীর আলম॥ মুন্সীগঞ্জের সদর উপজেলার রামপাল ইউনিয়নের সুখবাসপার প্রায় ১০ হাজার অধিক মানুষের ছিলোনা কোন নির্ধারিত ঈদগাহ ও কবরস্থানের। এলাকাবাসীর আশা ছিলো একটি নির্ধারিত ঈদগাহ ও কবরস্থান। স্থানীয়দের উদ্দ্যোগেই সম্মিলিত প্রচেষ্টায় র্দীঘ দিনের আশা এবার পুরণ হতে চলেছে। সুখবাসপুর মোড়ে প্রায় ৯০ শতাশং জমির উপর গড়ে তুলা হচ্ছে সুখবাস পঞ্চায়েতের ঈদগাহ ও কবরস্থান।

এতে জমি দান করেছেন এলাকার ১২জন ব্যাক্তি। তারা হলেন এমদাদুল হক জুয়েল, ইউনুস শেখ, হাজ্বী মোঃ ফরহাদ, আলী হোসেন, নুর হোসেন, ফারুক শেখ তোরাহা, সেলিম শেখ, সেলিম মিয়া, মজনু শেখ, হাজ্বী মোঃ হারুন অর রশিদ, হারুন শেখ, আজিম শেখ। এদিকে দুটি স্থাপনাই তৈরিতে অর্থ দিয়ে এগিয়ে এসেছেন স্থানীয় ও প্রবাসীরা। অর্থদাতারা হলেন হাজ্বী আবু বক্কর সিদ্দিক, প্রবাসী মোঃ রনি। এদিকে স্থাপনা দুটি বাস্তবায়নে এর মধেই গঠন করা হয়েছে উন্নয়ন কমিটি। এতে প্রধান উপদেষ্টা মুন্সীগঞ্জ-৩ আসনের সংসদ সদস্য এড. মৃণাল কান্তি দাস। কমিটির সভাপতি হারুন অর রশিদ ও সাধারণ সম্পাদক সাইফুল আযম বাবার।

কমিটির সভাপতি জানান, সম্মিলিত প্রচেষ্টার মাধ্যমেই কাজটি করা হচ্ছে। এতে সাংসদ এড. মৃনাল কান্তি দাস ৫লক্ষ ৭৫হাজার টাকা বরাদ্দ দিয়েছেন। সবাই এগিয়ে আসলে অতিদ্রুত এলাকাবাসীর র্দীঘ দিনের আশার বাস্তবায়ন সম্ভব।

এব্যপারে সহযোগিতার আশ্বাস দিয়ে ইউনিয়ন চেয়ারম্যান বাচ্চু শেখ জানান, যেকোন সামাজিক উন্নয়ন কর্মকান্ডেই যতটুকু পারি সহযোগিতা করার প্রচেষ্টা আছে। ঈদগাহ ও কবরস্থান নির্মান করা একটি ভালো কাজ। আমার পক্ষ থেকে যেকোন সহযোগিতা প্রয়োজন আমি করবো।

এদিকে নতুন ঈদগাহ ও কবরস্থান তৈরিতে উল্লাস প্রকাশ করেছে এলাকাবাসী।

নিউজ৭১

Leave a Reply