টঙ্গীবাড়ীতে ৩ হিমাগারে পচা আলুর গন্ধে অতিষ্ঠ পথচারীরা

টঙ্গীবাড়ী উপজেলার শরীফ, সানোয়ারা ও নুর হিমাগারের পচা আলুর গন্ধে পথচারীদের জীবন অতিষ্ঠ হয়ে পড়েছে। ওই হিমাগারগুলোর সামনে ফেলা পচা আলুর গন্ধে পথচারীরা নাকে কাপড় দিয়ে ওই ৩টি হিমাগারের সামনের রাস্তা পারাপার হচ্ছে। উপজেলার টঙ্গীবাড়ী-কালীবাড়ি সড়কের পাশে ওই ৩টি হিমাগার হওয়ায় ওই পথে যাতায়াতকারী যাত্রীদের প্রতিনিয়ত দুর্গন্ধ সহ্য করতে হচ্ছে। প্রতিদিন বাস, সিএনজি, আটোরিকশা ও হেঁটে টঙ্গীবাড়ী উপজেলার দক্ষিণ অঞ্চলের ৫টি ইউনিয়ন ধীপুর, কামাড়খাড়া, যশলং, দিঘিরপাড়, কাঁঠাদিয়া-

শিমুলিয়া ইউনিয়নের হাজার হাজার যাত্রী ওই পথ দিয়ে যাতায়াত করে। ওই পথে যাতায়াতকারী কতিপয় যাত্রী জানান, প্রতিদিন যাতায়াতের সময় এই ৩টি কোল্ড স্টোরের সামনে রাখা আলু পচা গন্ধের কারণে আমাদের নাকে কাপড় দিয়ে রাস্তা পারাপার হতে হয়। বৃষ্টি এলে পচা আলুর দুর্গন্ধ এত বেশি হয় যে বমি চলে আসে। সরেজমিন ওইসব হিমাগারের সামনে গিয়ে দেখা যায় প্রতিটি হিমাগারের সামনে রয়েছে পচা আলুর স্তূপ। আলু হিমাগার হতে বের করে তারপর হিমাগারের ভেতরে আলু বাছাই করে বস্তায় ভরছে শ্রমিকরা আর নষ্ট হয়ে যাওয়া আলুগুলো রাস্তার পাশে ফেলছে। শরীফ কোল্ড স্টোরের সামনে ফেলে রাখা পচা আলুগুলোর মধ্য হতে ভালো আলু খুঁজে বের করছে কতিপয় শিশু। শিশুরা পচা আলুগুলো নাড়াচাড়া করায় আরও বেশি দুর্গন্ধ বের হচ্ছে। এ ব্যাপারে সানোয়ারা ও নুর কোল্ড স্টোরের ম্যানেজার আ. ছাত্তার জানান, ব্যাপারীরা স্টোরের পেছনে পচা আলু ফেলানোর নির্ধারিত স্থান থাকা সত্ত্বেও স্টোরের সামনে পচা আলু ফেলছে। আমরা স্টোর কর্তৃপক্ষকে বারবার নিষেধ করেছি। পচা আলু যাতে দুর্গন্ধ না ছড়ায় তার জন্য পচা আলুর ওপর বালু ফেলছি।

যুগান্তর

Leave a Reply