শ্রীনগর গৃহবধূকে শ্লীলতাহানির অভিযোগ

মুন্সীগঞ্জের শ্রীনগর উপজেলার এক গৃহবধূকে (৩০) শ্লীলতাহানি করার অভিযোগ উঠেছে। উপজেলার কাজলপুর গ্রামের মুনসুর মাস্টারের ছেলে মো. আশিস (৪০) একই গ্রামের পাশের বাড়ির গৃহবধূকে বিভিন্ন সময় কু-প্রস্তাব দেওয়াসহ শ্লীলতাহানি করে আসছিল।

সরেজমিনে জানা যায়, অভিযুক্ত দুই সন্তানের জনক অটো চালক আশিস গত বৃহস্পতিবার (১২ সেপ্টেম্বর) সন্ধ্যায় ওই গৃহবধূকে জোরপূর্বক টানাহেচরা করে বাড়ির পাশে একটি বাগানে নেওয়ার চেষ্টা চালায়। পরে এ বিষয়ে থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করা হয়।

এদিকে এর দেড় মাস আগে আশিসের বিরুদ্ধে ওই গৃহবধূকে শ্লীলতাহানির ঘটনায় ওয়ার্ড সদস্যসহ স্থানীয় সমাজপতিরা সালিশ বৈঠক করে ঘটনার সমাধান করেন।

ভুক্তভোগী গৃহবধূ বলেন, প্রায় ৫ বছর ধরে ঢাকা থেকে গ্রামে এসে স্বামী সন্তানদের নিয়ে এখানে বসবাস করছি। লম্পট আশিস এক বছর আগে আমাকে কু-প্রস্তাব দেয়। তার কু-প্রস্তাবে আমি রাজি না হলে গত দেড় মাস আগে আশিস আমাকে প্রথম শ্লীলতাহানি করে। মানসম্মানের কথা চিন্তা করে স্থানীয় ইউপি সদস্যরা বৈঠক করে আশিসকে সাবধান করেন। এর পরেও গত বৃহস্পতিবার সন্ধ্যার দিকে আমাকে ঝাপটে ধরে টানাহেচরা করে বাড়ির পাশের বাগানের নেওয়ার চেষ্টা চালায়। আমার চিৎকারে লোকজন এগিয়ে আসলে আশিস সটকে পরে।

গৃহবধূ আরও বলেন, আশিস এখনও বিভিন্নভাবে তাদের দেখে নেওয়ার হুমকি দিচ্ছে।

গৃহবধূর স্বামী সাহেদুল ইসলাম জানান, এলাকায় একটি প্রতিষ্ঠানে সেলাইয়ের কাজ করে সংসার চালাই। এ ঘটনার আগের ঘটনায় সালিশে আশিসকে এ ধরনের অপকর্ম না করার জন্য সাবধান করা হয়। আশিস পুনরায় এ ধরনের অপকর্মে লিপ্ত হলে তাকে ৫০ হাজার টাকা অগ্রীম জরিমানা দিতে হবে ও তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থ নেওয়া হবে মর্মে লিখিত স্বাক্ষরও নেন সমাজপতিরা।

স্থানীয় জনপ্রতিনিধিদের কাছে এ বিষয়ে জানতে যোগাযোগ করে তাদের সঙ্গে কথা বলা সম্ভব হয়নি। অভিযুক্ত আশিসকেও বাড়িতে পাওয়া যায়নি।

আশিসের ছোট ভাই মো. ওহিদুলের কাছে এ বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, শুনেছি থানায় অভিযোগ হয়েছে। সে যদি অপরাধ করে থাকে তাহলে অবশ্যই তাকে শাস্তি পেতে হবে।

শ্রীনগর থানার এসআই ও অভিযোগের তদন্তকারী কর্মকর্তা আশিকুর রহমানের কাছে এ বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন, শ্লীলতাহানির ঘটনায় অভিযুক্ত আশিসকে ধরার জন্য একাধিক অভিযান চলানো হচ্ছে। গ্রেফতার চেষ্টা অব্যাহত রয়েছে।

দৈনিক অধিকার

Leave a Reply