সিরাজদিখানে তথ্য অধিকার নিশ্চিতে জনগণকে অবহিত করণে লিফলেট বিতরণ

নাছির উদ্দিন: সিরাজদিখানে তথ্য অধিকার নিশ্চিত করতে জনগণকে অবহিত করণে লিফলেট বিতরণ করেছে প্লাটফর্মস ফর ডায়ালগ (পি ফোর ডি) প্রকল্পের আওতায় কালারায়েরচর পল্লী সমাজ নারী উন্নয়ন সংগঠন ও ম্যাপ সদস্যগণ। গতকাল বৃহস্পতিবার সকাল ১০ টা থেকে বিকাল ৪ টা পর্যন্ত এই সংগঠনের নেতৃবৃন্দ ও সদস্যগণ উপজেলার কেয়াইন ইউনিয়নের ৯ টি ওয়ার্ডে লিফলেট বিতরণ করেণ। ইউরোপিয়ন ইউনিয়ন ও ব্রিটিশ কাউন্সিলের অর্থায়নে বাংলাদেশ সরকারের ঢাকা বিভাগীয় মন্ত্রীপরিষদের সহযোগিতায় তথ্য অধিকার নিশ্চিত করতে লিফলেট বিতরণ করা হয়েছে। লিফলেট বিতরণ কালে উপস্থিত ছিলেন কালারায়েরচর পল্লী সমাজ নারী উন্নয়ন সংগঠনের নির্বাহী পরিচালক রতœা হাওলাদার, ও ম্যাপ এসএপি লিডার শরিফ শেখ, ম্যাপ সদস্য কুলসুম বেগম, আলেয়া বেগম, সুরঞ্জণ মল্লিক, মনিকা মন্ডল, জাফর শেখ, আখী আক্তার ও কবীর খানসহ অনেকে।

এ সময় নেতৃবৃন্দ জনগণকে সচেতনতা বাড়াতে তথ্য অধিকার কি? এ সম্পর্কে বলেন তথ্য অধিকার একটি আইন, যে আইন জনগণ কতৃপক্ষের ওপর প্রয়োগ করতে পারে। জনগণ তার প্রয়োজনে কতৃপক্ষের গঠন, কাঠামো ও দাপ্তরিক কর্মকান্ড সংক্রান্ত যে কোন স্মারক, বই, নকশা, মানচিত্র, চুক্তি, তথ্য-উপাত্ত. লোগো বহি, আদেশ বিজ্ঞপ্তি, দলিল, নমুনাপত্র, প্রতিবেদন ইত্যাদি জানতে চাইতে পারে। তবে তথ্য জানার জন্য কিভাবে আবেদন করতে হবে সেটিও জনগণের জানতে হবে। নির্ধারিত ফর্মে অনুরোধকারীর নাম, ঠিকানা, প্রযোজ্যক্ষেত্রে ফ্যাক্স নম্বর ও ই-মেইল ঠিকানা দিতে হবে। যে তথ্যের জন্য অনুরোধ করা হয়েছে তার নির্ভুল ও স্পষ্ট বর্ণনা দিতে হবে। অনুরোধকৃত তথ্যের অবস্থান নির্ণয়ের সুবিধার্থে অন্যান্য প্রয়োজনীয় প্রাসঙ্গিক তথ্য দিতে হবে। কোন পদ্ধতিতে তথ্য পেতে আগ্রহী এর বর্ণনা অর্থাৎ পরিদর্শন করা, অনুলিপি নেওয়া, নোট নেওয়া বা অন্যকোন অনুমোদিত পদ্ধতি উল্খে করতে হবে। এছাড়া তথ্য চেয়ে না পেলে যা করণীয়, কোন ব্যাক্তি তথ্য আইনে ধারা ৯-এর উপধারা (১), (২) অথবা (৪) এ নির্ধারিত সময়সীমার মধ্যে তথ্য লাভে ব্যর্থ হলে বা দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তার কোন সিদ্ধান্তে সংক্ষুব্ধ হলে উক্ত সময়সীমা পার হওয়া, বা ক্ষেত্রমতো, সিন্ধান্ত লাভ করার পরবর্তি ৩০ (ত্রিশ) দিনের মধ্যে কতৃপক্ষের নিকট আপিল করতে পারবেন। এছাড়া অভিযোগ প্রতিকার ব্যবস্থা সংক্রান্ত ওয়েবসাইট বিস্তারিত তথ্য লিফলেটে দেওয়া রয়েছে।

Leave a Reply