শ্রীনগর উপজেলা প্রশাসন যা ২ বছরে পারেনি তা ছাত্রলীগ করে দিয়েছে ১ দিনে

আরিফ হোসেনঃ শ্রীনগর সরকারি সুফিয়া এ হাই খান বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের সামনে থেকে রিক্সা ও অটোষ্ট্যান্ড উপজেলা প্রশাসন ২ বছরেও সরাতে পারেনি। ভেস্তে গেছে মুন্সীগঞ্জ-১ আসনের এমপি, উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও উপজেলা নির্বাহী অফিসারের নির্দেশনা। বিষয়টি উপজেলা আইন শৃংখলা কমিটির সভা সহ বিভিন্ন সভায় জোড়ালো ভাবে উঠে আসলেও নেপথ্যে এক ইউপি চেয়ারম্যানের ইশারায় তা ব্যার্থ হয়ে আসছিল। অথচ সরকারী শ্রীনগর কলেজ ছাত্রলীগের ১ দিনের উদ্যোগে সেই জটলা আজ সরে গেছে।

স্থানীয়রা জানায়, শ্রীনগর বাজারের একদিকের প্রবেশ মুখকে কেন্দ্র করে সরকারি সুফিয়া এ হাই খান বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের সামনে রিক্সা ও অটোষ্ট্যান্ড গড়ে উঠে। একদিকে ষ্ট্যান্ডের কারণে জ্যাম অপরদিকে চাঁদা আদায় কারীরা ষ্ট্যান্ডের সম্মুখের ফুটপাতে প্রতিদিন ৫/৬ টি করে অস্থায়ী দোকান বসানোর কারনে এতে স্কুল শুরু ও ছুটির সময়ে শিক্ষক এবং ছাত্রীদের চরম দুর্ভোগ পোহাতে হতো। কোন কোন সময় তাদের ২শ গজ জায়গা পেরুতে সময় লেগে যেত ২০ থেকে ২৫ মিনিট। জ্যামের এই সুযোগকে কাজে লাগিয়ে বখাটেরা যৌন নিপিড়নের সুযোগ নিতে থাকে। বখাটে অনেক অটো চালককে দেখা গেছে জোড় করে স্কুলের ছাত্রীদেরকে অটোতে তুলে নিয়ে হেনস্তা করতে। একজন ছাত্রীকে হেনস্তার বিষয়টি উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মসিউর রহমান মামুন আইন শৃংখলা কমিটির সভায় তুলে ধরে অটোষ্ট্যান্ড সরানোর নির্দেশ দিলেও তা কাজে আসেনি। এর আগে মুন্সীগঞ্জ-১ আসনের এমপি মাহী বি,চৌধুরী অটোষ্ট্যান্ড সরানোর জন্য ২৪ ঘন্টার আল্টিমেটাম দেন। সাধারণ মানুষ এই আশ^াষে সস্তি পেলেও তার নির্দেশেও কোন কাজ হয়নি। তৎকালীন উপজেলা নির্বাহী অফিসার জাহিদুল ইসলাম একাধিকবার উদ্যোগ নিয়ে ব্যার্থ হন।

এমপি, উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান, উপজেলা নির্বাহী অফিসারের নির্দেশ ব্যার্থ হওয়ার কারণ তথ্যানুসন্ধান করতে গিয়ে বের হয়ে আসে শ্রীনগর সদর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মোকলেছুর রহমানের নেপথ্যের নির্দেশ। তার উপস্থিতিতে বিষয়টি উপজেলার বিভিন্ন সভায় উত্থাপিত হলে তিনি প্রকাশ্যে এর বিরোধীতা করতেন। শনিবার সকালে শ্রীনগর থানায় কমিউনিটি পুলিশিং ডে’র সভায় বিষয়টি তুলে ধরে উপজেলা সেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি জহিরুল হক নিশাত শিকদার বলেন, প্রশাসন যেহেতু উদাসীন তাহলে ৭১ এর মতো হয়তো আমাদের হাতে লাঠি নিতে হবে। তখনও সদর উপজেলার চেয়ারম্যান তার যুক্তি তুলে ধরে অটোষ্ট্যান্ড এখনই না সরানোর পক্ষে সাফাই গান।

শ্রীনগর প্রেস ক্লাবের সভাপতি মোঃ নজরুল ইসলাম বলেন, শ্রীনগর উপজেলা আইন শৃংখলা কমিটির গত ২ বছরের রেজুলেশন ঘাটলে দেখা যাবে প্রায় প্রতিটি সভায় বিষয়টি উঠে এসেছে। কিন্তু কাজের কাজ কিছুই হয়নি।

সর্বশেষ সরকারী শ্রীনগর কলেজ ছাত্র লীগের সভাপতি মোঃ আরিফুল ইসলাম রাব্বি ও সাধারণ সম্পাদক জহিরুল ইসলাম লিমনের নেতৃত্বে এগিয়ে আসে কলেজ ছাত্রলীগ। তারা অটো ও রিক্সা ষ্ট্যান্ড পরিচালনাকারীদেরকে ২ দিনের মধ্যে তা সরিয়ে নিতে বলেন। শনিবার দুপুরে তারা স্কুলের সামনে গিয়ে সেখান থেকে ষ্ট্যান্ড ও অস্থায়ী দোকান সরিয়ে দেন। বিষয়টি ফেসবুক সহ সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে উঠে আসলে তাদের উদ্যোগকে অনেকেই সাধুবাদ জানাচ্ছেন।

শ্রীনগর কলেজ ছাত্রলীগের সভাপতি আরিফুল ইসলাম রাব্বি বলেন, বিষয়টি যেহেতু ছাত্রীদের জন্য দুর্ভোগের সেহেতু আমরা এই বিষয়ে উদ্যোগ নিয়েছি।

Leave a Reply