শ্রীনগরে কমিউনিটি ক্লিনিকে টাকার বিনিময়ে দেওয়া হয় ওষুধ

মুন্সীগঞ্জের শ্রীনগরে একটি কমিউনিটি ক্লিনিকে চিকিৎসা সেবা ও ওষুধ নিতে আসা রোগীদের কাছ থেকে টাকা নেওয়ার চিত্র ধরা পরেছে। সরকারিভাবে চিকিৎসা সেবা ও প্রয়োজনীয় ওষুধপত্র বিনামূল্যে দেওয়ার বিধান থাকলেও ওই ক্লিনিকে সঞ্জয় মন্ডল নামে এক ব্যক্তি উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তার বরাত দিয়ে চিকিৎসা সেবা গ্রহণ করতে আসা মানুষের কাছ থেকে টাকা নিচ্ছেন।

সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, সোমবার (২৮ অক্টোবর) সকালে উপজেলার বিবন্দী কমিউনিটি ক্লিনিকে প্রায় ২০ থেকে ৩০ জন নারী পুরুষ চিকিৎসা সেবা নেওয়ার জন্য উপস্থিত হয়েছেন। ভেতরের রুমে কয়েকজনের সঙ্গে কথা বলছেন (সিএইচসিপি) সঞ্জয় মন্ডল। এ সময় ওষুধ দেওয়ার পাশাপাশি তাদের কাছ থেকে ৫ থেকে ১০ টাকা করে নিচ্ছেন। দৈনিক প্রায় শতাধিক মানুষ চিকিৎসা সেবা নিতে এখানে আসেন বলে জানান স্থানীয়রা।

এ সময় ক্লিনিকে আসা কয়েকজন বলেন, এর আগে এখান থেকে চিকিৎসা সেবাসহ প্রয়োজনীয় ওষুধপত্র বিনামূল্যেই পেয়েছেন তারা। প্রায় দুই মাস যাবত তাদের টাকা দিতে হচ্ছে।

সঞ্জয় মন্ডল নামে সেবা দানকারী এক ব্যক্তির কাছে টাকা নেওয়ার বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন, উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তার নির্দেশে তিনি টাকা নিচ্ছি। তিনি আরও বলেন, শুধু এখানেই নয় এখন সব জায়গাতেই টাকা নেওয়া হয়।

উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডা. সৈয়দ রেজাউল ইসলামের কাছে এ বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন, টাকা নেওয়ার বিধান আছে। কারণ কমিউনিটি ক্লিনিক পরিষ্কার পরিচ্ছন্নতায় এই অর্থ ব্যয় করা হয়।

দৈনিক অধিকার

Leave a Reply