খোকার অবস্থা আশঙ্কাজনক বললেন ছেলে

ক্যানসারে আক্রান্ত হয়ে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে চিকিৎসাধীন বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান এবং অবিভক্ত ঢাকার সাবেক মেয়র মুক্তিযোদ্ধা সাদেক হোসেন খোকার ছেলে বিএনপির বৈদেশিক বিষয়ক কমিটির সদস্য প্রকৌশলী ইশরাক হোসেন বলেছেন, বাবা এখনো বেঁচে আছেন। ১০ দিন ধরে হাসপাতালে ভর্তি আছেন। উনার অবস্থা খুবই গুরুতর। বেশ মুমূর্ষু অবস্থায় আছেন। ডাক্তার বলেছেন তার অবস্থা আশঙ্কাজনক।

তিনি বলেন, তবে বাবার মৃত্যুর বিষয়ে যেটা ছড়ানো হয়েছে সেটা আসলেই গুজব। সে রকম কিছু এখনো হয়নি। এটা হলে তো লুকানোর কিছু নেই।

শুক্রবার (০১ নভেম্বর) রাতে যুক্তরাষ্ট্রের নিউইয়র্ক থেকে পাঠানো এক ভিডিও বার্তায় তিনি এসব কথা জানান।

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ঢাকা-৬ আসনে বিএনপির প্রার্থী হয়ে লড়াই করা ইশরাক হোসেন বলেন, উনি (সাদেক হোসেন খোকা) একজন বীর মুক্তিযোদ্ধা। চারবার নির্বাচিত সাবেক এমপি। দুই বার কেবিনেট মন্ত্রী ছিলেন। একই সঙ্গে তিনি অবিভক্ত ঢাকার মেয়র, কেবিনেট মন্ত্রী ও অবিভক্ত ঢাকা মহানগর বিএনপির সভাপতি পদে ছিলেন। সুতরাং লুকানো-চাপানোর কিছু নেই। হায়াত-মউত আল্লাহর হাতে। যদি সে রকম কোনো পরিস্থিতি হয় সেটা অবশ্যই জাতীয়ভাবে নিউজ হবে। তবে এখন আমি যেটা বলতে পারি তিনি আশঙ্কাজনক অবস্থায় আছেন। ওনাকে বিভিন্ন রকম ওষুধ দিয়ে কমফোর্টেবল রাখা হয়েছে।

বাবার ক্যান্সারের যে ট্রিটমেন্ট চলছিল সেটা বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে জানিয়ে ইশরাক বলেন, ক্যান্সারের ট্রিটমেন্ট দেওয়ার মতো আর পরিস্থিতি নেই। এখান থেকে ফিরে আসাটা আল্লাহর ওপর নির্ভর করছে।

বিএমপি নেতা সাদেক হোসেন খোকা গেল কয়েকদিন ধরে জীবন-মৃত্যুর সন্ধিক্ষণে। সংকটাপন্ন অবস্থায় মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের নিউইয়র্কের ম্যানহাটনের মেমোরিয়াল স্লোয়ান ক্যাটারিং ক্যানসার সেন্টারে নিবিড় পরিচর্যাকেন্দ্রে (আইসিইউ) চিকিৎসাধীন খোকার শারীরিক অবস্থা পরিবর্তনের আশা ছেড়ে দিয়েছেন চিকিৎসকেরা। তারা খোকার সব চিকিৎসা বন্ধ করে দিয়েছেন।

অবিভক্ত ঢাকার সাবেক মেয়র ও মুক্তিযোদ্ধা খোকার জীবনের শেষ ইচ্ছা অনুযায়ী তাকে দেশে নেওয়াও পরিবারের পক্ষে সম্ভব হচ্ছে না। পাসপোর্ট না থাকায় দেশে ফিরতে পারছেন না তিনি। পরবর্তী সময়ে কী হবে, এ নিয়ে স্বজনেরা বিভ্রান্তিতে আছেন।

প্রসঙ্গত, ২০১৪ সালের মে মাসের ১৪ তারিখে সাদেক হোসেন খোকা চিকিৎসার জন্য মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র গমন করেন। সেখানে তার কিডনির সমস্যা ধরা পড়ে। এরপর সেখানে থেকেই তিনি চিকিৎসা নেওয়া শুরু করেন।

হাসপাতালে খোকার ছেলে ইশরাক ছাড়াও তার মা, এক ভাই ও বোন আছেন।

অধিকার

Leave a Reply