মুন্সীগঞ্জের শ্রেষ্ঠ ইউএনও হলেন হাসিনা আক্তার

মুন্সীগঞ্জ জেলার ছয় উপজেলার মধ্যে ২০১৯ সালের শ্রেষ্ঠ উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) নির্বাচিত হয়েছেন টঙ্গীবাড়ি ইউএনও মোসাম্মৎ হাসিনা আক্তার।

রোববার মুন্সীগঞ্জের অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (শিক্ষা ও আইসিটি) মো. সামিউল মাসুদ স্বাক্ষরিত মুন্সীগঞ্জ জেলার ‘শ্রেষ্ঠ শিক্ষক-শিক্ষিকা, কর্মকর্তা-কর্মচারী, ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠান বাছাই কমিটি’র এক পত্রে টঙ্গীবাড়ি উপজেলা নির্বাহী অফিসার হাসিনা আক্তারকে শ্রেষ্ঠ ইউএনও ঘোষণা করা হয়।

জানা যায়, ২০১৭ সালে ২৫ সেপ্টেম্বর টঙ্গীবাড়িতে ইউএনও হিসেবে যোগদান করেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোসাম্মৎ হাসিনা আক্তার। এর পর থেকে উপজেলা প্রশাসনিক চিত্র পাল্টে যেতে থাকে। প্রশাসনের সুষ্ঠু তত্ত্বাবধান ও উপজেলার উন্নয়ন কর্মকাণ্ডে উল্লেখযোগ্য ভূমিকা রেখে আসছেন তিনি।

তিনি যোগদানের পর, ইউএনও মেধাবৃত্তি, বঙ্গবন্ধু ও বঙ্গমাতা গোল্ড ফুটবল টুর্নামেন্ট চালু করেন। বাল্যবিয়ে বন্ধ, মেয়েদের যৌন নির্যাতন বন্ধ, মাদকসেবীদের ভ্রাম্যমাণ দণ্ডসহ বিভিন্ন সামাজিক কর্মকাণ্ডে উপজেলাবাসীর মন জয় করে নিয়েছেন তিনি।

নদীভাঙন পরিবারের পাশেও ছিলেন তিনি। তা ছাড়া টঙ্গীবাড়ি মডেল প্রাথমিক বিদ্যালয়ে ছাত্রছাত্রীদের পোশাকের পরির্বতন করেন ও শিক্ষাক্ষেত্রে নানা পদক্ষেপেও তার ভূমিকা অপরিসীম। তার সাফল্যে সোমবার উপজেলা প্রশাসনের বিভিন্ন অধিদফতর ও টঙ্গীবাড়ি প্রেসক্লাবের পক্ষ থেকে ফুল দিয়ে শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন দেয়া হয়।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোসাম্মৎ হাসিনা আক্তার যুগান্তরকে জানান, টঙ্গীবাড়িতে যোগদানের পর থেকেই উপজেলাবাসীর সহযোগিতা পেয়েছি। সব কর্মকাণ্ডে জেলা প্রশাসনে ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষ আমাকে সহযোগিতা করেছে। এ জন্য সবাইকে ধন্যবাদ জানাচ্ছি।

যুগান্তর

Leave a Reply