অসহায়ের পাশে ইয়ুথ ফাউন্ডেশন

ইমতিয়াজ বাবুল: অসহায় মানুষের মুখে হাসি ফোটাতে ওয়ার্ক ফর হিউম্যানিটি স্লোগান নিয়ে ২০১৫ সালে ১০১ তরুণের হাত ধরে সিরাজদীখান উপজেলার লতব্দী ও বালুচর ইউনিয়নে গড়ে ওঠে অরাজনৈতিক ইয়ুথ ফাউন্ডেশন নামে স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন। নানামুখী সামাজিক কর্মকাণ্ডের জন্য আজ তারা গরিবের বন্ধু বলে খ্যাতি পেয়েছে। ২০১৫ সালের ১৬ ডিসেম্বর একটি অসহায় মেয়ের বিয়ের খরচ দেওয়া থেকে শুরু করে গত ৫ বছরে সামাজিক ও জনকল্যাণমূলক কাজ করে সবার মন কেড়েছে সংগঠনটি।

সংগঠনের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি জাফরুল ইসলাম সুমন বলেন, ইয়ুথ ফাউন্ডেশন ২০১৬ সালের ৬ জানুয়ারি লতব্দী ইউনিয়নের নতুন ভাসানচর হাফিজুল উলুম ইসলামিয়া মাদ্রাসায় হাফেজদের বিশেষ সম্মাননার বৃত্তি প্রদান করে। তারা প্রতিবছরই হাফেজদের সম্মাননা দেওয়া অব্যাহত রেখেছেন। সংগঠনটি প্রতিবছর দেশের উত্তরাঞ্চলের শীতার্তদের মাঝে শীতবস্ত্র বিতরণ করে থাকে। এ ছাড়া তারা প্রাকৃতিক দুর্যোগ, বন্যাকবলিত এলাকার বিপদগ্রস্ত মানুষের সহায়তা, পথশিশুদের খাবার ব্যবস্থাসহ ঈদের সময় সেমাই, চিনি, তেল, দুধ, নতুন জামাকাপড় বিতরণ করে আসছে। ২০১৭ ও ২০১৯ সালের বন্যায় কুড়িগ্রামে শত শত ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারের কাছে পৌঁছে দেওয়া হয় ত্রাণসামগ্রী ও অর্থ। এ ছাড়াও অসহায় বিধবা নারীদের দেওয়া হয় সেলাই মেশিন। যুবসমাজকে মাদকমুক্ত রাখতে এবং শিশু-কিশোরদের শারীরিক, মানসিক বিকাশ এবং সুস্থ বিনোদনের লক্ষ্যে খেলার আয়োজন করে থাকে সংগঠনটি। উপজেলায় ইটভাটায় কর্মরত শিশু শ্রমিকদের জন্য ইয়ুথ ফাউন্ডেশন বিনামূল্যে স্কুল পরিচালনা করে আসছে।

সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক বায়োজিত খান বলেন, আমাদের প্রত্যাশা মানুষের মাঝে সুন্দর সমাজের স্বপ্ন দেখানো, মানুষের মুখে হাসি ফোটানো। বালুচর ইউপি চেয়ারম্যান আবু বকর সিদ্দিক বলেন, ‘কয়েক বছরের মধ্যে তারা অসহায় মানুষের সেবা দিয়ে সবার নজর কেড়েছে। তাদের কোনো কর্মকাণ্ডে আমার কোনো সহযোগিতার প্রয়োজন হলে আমি প্রস্তুত আছি।’

সমকাল

Leave a Reply