টঙ্গীবাড়ীতে নারীর ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার, খুনের অভিযোগ পরিবারের

মুন্সীগঞ্জের টঙ্গীবাড়ী উপজেলায় শাহানাজ (২২) নামে এক নারীর ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। স্বামীর প্রথম বিয়ের কথা জানতে পারায় হত্যা করে তাকে গাছে ঝুলিয়ে রাখা হয় বলে জানা যায়।

বৃহস্পতিবার (৫ মার্চ) সকাল ৯টার দিকে উপজেলার নেত্রাবর্তী গ্রামের রব শেখের বাড়ির পাশের আম গাছ থেকে ঝুলন্ত অবস্থায় লাশটি উদ্ধার করা হয়।

নিহত শাহানাজ শরিয়তপুর জেলার সদর উপজেলার কোয়ারপুর গ্রামের শামসু শেখের মেয়ে।

বৃহস্পতিবার সকালে ওই এলাকার আবু তালুকদার ফজরের নামাজ পড়তে যাওয়ার সময় ঝুলন্ত অবস্থায় ওই নারীর লাশ দেখতে পায়। পরে পুলিশকে খবর পেয়ে এসে সকাল ৯টায় লাশ উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসে। ঘটনার পর থেকে নিহতের স্বামী রাসেল দেওয়ান পলাতক রয়েছে।

নিহতের বড় বোন সুবর্ণা বেগম জানান, প্রেম করে ১ বছর আগে নেত্রাবর্তী গ্রামের মুজিবুর দেওয়ানের ছেলে রাসেল দেওয়ানের সঙ্গে বিয়ে হয় নিহত শাহানাজের। এর আগেও অপর একটি বিয়ে করে রাসেল। পরে আগের বিয়ের কথা গোপন করে শাহানাজকে বিয়ে করে সে।

নিহতের বড় বোন আরও জানান, এ নিয়ে স্বামী শাশুড়ির সঙ্গে প্রায়ই ঝগড়া বিবাদ হতো তার। প্রথম স্ত্রী, শাশুড়ি শাহানাজকে বাড়িতে উঠতে না দেওয়ায় আমার বোনকে নিয়ে ঢাকার কামরাঙ্গীর চর এলাকায় বসবাস করতে রাসেল। পরে ৩ মাস পূর্বে এলাকায় ফিরে আসে তারা। কিন্তু শাহানাজের শাশুড়ি তাকে বাড়িতে উঠতে না দিয়ে পিটিয়ে বাড়ি থেকে তাড়িয়ে দেয়। পরে বুধবার পুনরায় সে বাড়িতে ফিরলে তার স্বামী শাশুড়ি মিলে তাকে খুন করে গাছে ঝুলিয়ে রাখে।

এ ব্যাপারে টঙ্গীবাড়ী থানা ওসি তদন্ত গোলাম রসুল জানান, লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে।

দৈনিক অধিকার

Leave a Reply