মুন্সীগঞ্জে থানায় মামলা না নেয়ায় খিচুড়ি উৎসব!

মুন্সীগঞ্জ সদর থানায় হামলার সিকার সিকদার, খা ও দেওয়ানদের মামলা না নেয়ায় প্রতিপক্ষ মোল্লারা খিচুড়ি করেছে বলে অভিযোগ উঠেছে। মঙ্গলবার দুপুরে চরকেওয়ার ইউনিয়নের খাসকান্দি গ্রামে এ ঘটনা ঘটেছে বলে একাধিক সূত্র নিশ্চিত করেছে। ঘটনার বিবরণে জানা যায়, গত ১৬ এপ্রিল বৃহস্পতিবার ছোট মোল্লাকান্দি গ্রামের সালাহউদ্দিন মোল্লা, বাবু বেপারী গ্রুপের হামলার শিকার হয় রশিদ শিকদার, মোহাম্মদ খা, রফিজ শিকদার ও জয়নাল দেওয়ান বংশের লোকজন। এই তিন বংশের লোকজন গ্রাম ছেড়ে পালিয়ে বেড়াচ্ছে।

গত ১৬ এপ্রিল বৃহস্পতিবার ফজরের সময় এ ঘটনা ঘটে ছিল।কিন্তু মুন্সীগঞ্জ থানা পুলিশ মোল্লাদের মামলা গ্রহন করলেও শিকদার, খা ও দেওয়ানদের মামলা গ্রহন করেনি। এই জন্য মোল্লা গ্রুপের লোকজন গতকাল মঙ্গলবার দুপুরে খিচুড়ি উৎসব আয়োজন করে।

মোল্লা গ্রুপের মামুন ও জেসমিনের নেতৃত্বে বাবু বেপারী, সালাউদ্দিন মোল্লা, আফজাল ফকির, নাসির ঢালী, মিল্লাত বেপারী, সেলিম হাওলাদার, মনির হোসেন হাওলাদার, সোহেল হাওলাদার, রানা হাওলাদার ও জসিম উদ্দিন হাওলাদারের নেতৃত্বে ৩ শ লোকের সমাগম করে। নাম প্রকাশ না করার শর্তে কয়েকজন জানান, মোল্লারা ৩ ডেক খিচুড়ি রেধে খাসকান্দি প্রায় ৩ শ লোকের সমাগম ঘটায়।

মুন্সীগঞ্জ থানা পুলিশ বিষয়টি টের পেয়ে খাসকান্দি গ্রামে গেলে পাশের ছাপড়ায় ডেক রেখে উৎসব কারীরা আড়ালে চলে যায়।

পুলিশ চলে গেলে কোহিনূর বেগম নামে এক নারীকে মারধরেরও অভিযোগ উঠেছে। যখন দেশে করোনা ভাইরাসের জন্য প্রশাসন যখন সামাজিক দূরত্বের গুরুত্ব দিচ্ছে তখন থানায় মামলা না নেয়ায় খাসকান্দি গ্রামে ৩ শ লোকের ভীর ও খিচুড়ি উৎসব হলো।

মুন্সীগঞ্জ সদর থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ আনিচুর রহমান জানান, আমরা খবর পেয়ে ঘটনা স্থলে পুলিশ পাঠাই। সেখানে গিয়ে খিচুড়ি ডেক ও জনসমাগম পাওয়া যায়নি। তারা খিচুড়ি বাড়ি বাড়ি পৌঁছে দিয়েছে ।

খোঁজ ২৪ বিডি

Leave a Reply