লৌহজংয়ে বিআইডব্লিউটি-এর দুই প্রকৌশলীর বিরুদ্বে উপজেলা নির্বাহী অফিসারের কাছে লিখিত অভিযোগ

শেখ সাইদুর রহমান টুটুল: শেষে বিআইডব্লিউটিএর শিমুলিয়া ঘাটের দুই প্রকৌশলীর বিরুদ্বে সাত লাখ টাকা দাবি করার অভিযোগ এনে লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন উপজেলার কুমারভোগ ইউনিয়নের শিমুলিয়া- রানীগাঁও এলাকার স্থায়ী বাসিন্দারা। এসব এলাকার ক্ষতিগ্রস্থ ভুমির প্রকৃত মালিক গন সোমবার বিকেলে লৌহজং উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোহাম্মদ কাবিরুল ইসলাম খানের অফিসে লিখিত ভাবে এই অভিযোগ দায়ের করেছেন বলে জানান, অভিযোগ কারী মো. সাইদ শেখ ও মো. বাদল শেখ।

তবে লিখিত এই অভিযোগ পাওয়ার কথা স্বীকার করেছেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা। অভিযোগে উল্লেখ করা হয়, আমারা অভিযোগকারীরা লৌহজং উপজেলার কুমারভোগ ইউনিয়নের শিমুলিয়া ও রানীগাঁও মৌজায় পুর্বপুরুষ থেকে বসবাস করছি। এখানে আমাদের পূর্ব পুরুষ থেকে বাড়ি-ঘর এবং জায়গা-জমি মালিকানায় ভোগদখল করে আসছি।

উল্লেখ্য বিআইডব্লিউটিএ আমাদের কিছু অংশ জমি একোয়ার করে নেয় এবং তারা সে জমির সিমানা নির্ধারন করে দেয়। বর্তমানে নির্ধারনকৃত সিমানা অতিক্রম করে আমাদের মালিকান জায়গার সিমানার অন্তত বিশ ফুট ভিতরে জোড়পূর্বক তারা সিমানা নির্ধারন করতে চায়। নতুন করে আবার আমাদের সিমানা বুঝিয়ে দিতে চায়। আমাদের জমির মালিকগনের পক্ষ থেকে মো. মাহবুব সহ অন্য আরোও দুইজন বিআইডব্লিউটিএর অফিসে গেলে বিআইডব্লিউটিএর প্রকৌশলী হারিছ ও সহকারী প্রকৌশলী দাউদ আমাদের নিকট সাত লাখ টাকা দাবি করেন। আমরা সাত লাখ টাকা দিলে তারা আমাদের জমির সিমানা বুঝিয়ে দিবে বলে জানান। অন্যর্থায় আমাদের জমির বিশ ফুট জায়গা দখল করে তার দেয়াল নির্মান করার হুমকি প্রদান করে। গত শুক্রবার কার্যক্রম শুরু করলে আমরা মালিক পক্ষরা জোরালো ভাবে তাতে বাধা দেই।

এই বিষয়ে উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোহাম্মদ কাবিরুল ইসলাম খান জানান, একটি লিখিত অভিযোগ আমি সোমবার বিকেলে হাতে পেয়েছি এই বিষয়ে তদন্ত করার পর আইন অনুযায়ী ব্যবস্থা নেয়া হবে।

গ্রাম নগর বার্তা

Leave a Reply