ডাক্তার দেখাতে এসে লাশ হলেন একই পরিবারের ৩ জন

মারুফার বুকে ব্যথা। আড়াই বছরের ছেলেকে সঙ্গে নিয়ে দুলাভাই আলমের সঙ্গে মুন্সীগঞ্জ থেকে ঢাকায় ডাক্তার দেখাতে আসছিলেন তিনি। কিন্তু ডাক্তার আর দেখানো হলো না তার। বুড়িগঙ্গা নদীতে লঞ্চডুবিতে নিখোঁজ হন তিনজনই।

সোমবার (২৯ জুন) সকালে ময়ূর-২ নামে যাত্রীবাহী একটি লঞ্চের সঙ্গে ধাক্কায় মর্নিং বার্ড নামে লঞ্চটি অর্ধশতাধিক যাত্রী নিয়ে ডুবে যায়। দুপুর পর্যন্ত একে একে ৩০ জনের লাশ উদ্ধার করেন ফায়ার সার্ভিস, কোস্টগার্ড ও নৌবাহিনীর সদস্যরা। এই ৩০ জনের মধ্যে ছিলেন মারুফা, তার ছেলে আবু তালহা ও দুলাভাই।

বুড়িগঙ্গার পাড় থেকে মারুফার ভাইয়ের ছেলে সিজার জানান, তাদের বাড়ি মুন্সীগঞ্জের টঙ্গীবাড়ির আপরঘাট এলাকায়। তার ফুফু কিছু দিন থেকে অসুস্থ ছিলেন। ডাক্তার দেখানোর জন্য মুন্সীগঞ্জ থেকে মর্নিং বার্ড লঞ্চে করে ঢাকায় আসছিলেন। পথে এই দুর্ঘটনা ঘটে।

সিজার আরও জানান, তিনজনের লাশ নিয়ে তারা বাড়ির উদ্দেশ্যে রওনা দিয়েছেন।

প্রসঙ্গত, বুড়িগঙ্গা নদীতে লঞ্চডুবিতে প্রাণহানির ঘটনায় তিন সদস্যর তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। জব্দ করা হয়েছে ময়ূর-২ নামে যাত্রীবাহী লঞ্চটি।

রাইজিংবিডি

Leave a Reply