ভাঙা হলো বাইনঘারা ব্রিজের অতিরিক্ত অংশ

মুন্সীগঞ্জের দিঘিরপাড়-হাসাইল সড়কের বাইনঘারা ব্রিজের পাকা স্থাপনা দিয়ে পানি চলাচল বন্ধ করা অংশ মঙ্গলবার (৭ জুলাই) বিকেলে ভেঙে দেয়া হয়েছে। পানি প্রবাহ আটকে দেয়ার কারণেই সড়কটির ভাঙ্গুনিয়া অংশ স্রোতে ভেঙে যায়। সড়কটির দক্ষিণে পদ্মা প্রান্তের পানির চেয়ে উত্তর পাড়ের উচ্চতা প্রায় ৫ ফুট বেশি।

মুন্সীগঞ্জ এলজিইডির নির্বাহী প্রকৌশলী মো. রফিকুল হাসানের নেতৃত্বে এলজিইডির একটি টিম দুপুরে পরিদর্শন করে জানিয়েছে, বাইনঘারা ব্রিজের নিচে পানি প্রবাহের স্থান পাকা করে বন্ধ করে দেয়ার কারণেই রাস্তাটি ভেঙে গেছে। তাই রাস্তাটি রক্ষার জন্য ব্রিজের নিচ দিয়ে পানি প্রবাহ চালু করা দরকার। এজন্য টঙ্গীবাড়ি উপজেলা চেয়ারম্যান জগলুল হালদার ভুতু উপস্থিত থেকে বিকালে পানি প্রবাহ পথের পাকা একটি অংশ ভেঙে দেয়। এতে হু হু করে সড়কটির উত্তর প্রান্তে পানি প্রবেশ করতে থাকে।

জগলুল হালদার ভুতু জানান, বড় আকারের এই ব্রিজ দিয়ে প্রতিবার প্রবল স্রোত প্রবেশ করে পাশের জমিজমা ভেঙে যেত। এমনকি পাশে আরেকটি ব্রিজ এবং কালভার্টটির দুই পাশের মাটিও এমনভাবে সরে যায় যায় যেন বক্সকাভার্টও পরে যাওয়ার অবস্থা। পরবর্তীতে এটি বন্ধ করা হয়েছে বছর দুই আগে। এর আগে এই সমস্যাটি হয়নি। তবে এবার পানির চাপ বেশি থাকায় ভাঙ্গুনিয়া এলাকায় রাস্তাটি ভেঙে পানি প্রবলভাবে ঢুকে পরে।

এলজিইডির নির্বাহী প্রকৌশলী মো. রফিকুল হাসান জানান, প্রবাহে বাধা থাকায় পানির প্রবল চাপ রয়েছে। তাই রাস্তাটি আরও কয়েক স্থানে ভেঙে যেতে পারে।

তিনি বলেন, ব্রিজটির মুখ খুলে দেয়ার পানি চাপ কমলেই রাস্তাটি রক্ষা করা সম্ভব। পানি প্রবাহ বন্ধ করা পুরো অংশ ভেঙে দিয়ে পানি প্রবাহ স্বাভাবিক অবস্থায় নিয়ে আসা হবে বলেও জানান তিনি। সময় সংবাদে প্রতিবেদন প্রচারের বিষয়টি নজরে এসময় উপস্থিত সবাই সময়ের প্রতি ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন।

সময় টিভি নিউজ

Leave a Reply