জাপানে বিনামূল্যে দেয়া হবে করোনা’র টিকা

রাহমান মনি: বিজ্ঞানীদের নিরলস প্রচেষ্টায় কোভিড-১৯ এর টিকা আবিস্কার এর সাফল্য অনেকটাই এগিয়ে। আগামী দুই তিন মাসের মধ্যে হয়তো সাফল্যের মুখও দেখতে পাবেন বিজ্ঞানীরা। আর তখন স্বাভাবিকভাবে ব্যবহৃত হবে চিকিৎসা সেবায়।

আর এই ভ্যাকসিন পেতে শুরু হয়ে গেছে বিভিন্ন লবিং। জোর প্রচেষ্টা চলছে কার আগে কে পাবে বা কিভাবে পাবে এবং সেইটা কিভাবে ব্যবহার করা হবে। জাপান ও সেই রেস থেকে পিছিয়ে নেই।

জাপানের বর্তমান প্রধানমন্ত্রী সুগা গত ১৬ সেপ্টেম্বর ‘২০ দায়িত্ব গ্রহন করার প্রথম দিনেই জানান দিয়েছিলেন তিনি জাপান এবং জাপানী জনগনের কল্যানে যা যা করার তা করতে তিনি পিছপা হবেন না।

করোনার প্রভাব পড়েছে জাপানের উপর। মৃত্যুর হার কম হলেও আক্রান্তের হার কিন্তু কম নয়। প্রায় ১২ কোটি ৪০ লাখ জনসংখ্যার এ দেশটিতে এপর্যন্ত ৮৪,২১৫ জন করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন (২ অক্টোবর ‘২০) । এর মধ্যে ৭৭,২১৯ জন সম্পূর্ণ সুস্থ হয়ে স্বাভাবিক জীবন যাপন করছেন এবং ১,৫৭৮ জন মৃত্যুবরণ করেছেন।

জাপানে বসবাসরত সকলকে বিনামুল্যে করোনা ভ্যাকসিন এর টিকা প্রদান করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে সুগা প্রশাসন। ২ অক্টোবর ‘২০ স্বাস্থ্য মন্ত্রনালয়ের উপদেষ্টা প্যানেল তা অনুমোদন করে। আর এই জন্য জাপান সরকারকে গুনতে হবে ৬৭১.৪ বিলিয়ন ইয়েন বা প্রায় ৬.৪ বিলিয়ন ডলার প্রায়।

সংক্রমণ রোধে দেশের সকল নাগরিককেই প্রথম ডোজ বাধ্যতামুলক সরবরাহের সিদ্ধান্ত নেয় স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়। যদিও নীতিমালায় বিদেশী নাগরিকদের জন্য আলাদা ভাবে কিছু বলা হয়নি তবু আশা করা যাচ্ছে স্বাভাবিক ভাবেই স্বাস্থ বীমার আওতায় সকলেই এই সুবিধার অন্তর্ভুক্ত থাকবেন। এ ছাড়া জাপানে বসবাসরত প্রায় এক কোটি নাগরিককে এই নীতিমালার বাহিরে রেখে কেবল মাত্র জাপানী নাগরিকদের জন্য বিনামুল্যে ভ্যাকসিন প্রদান সুফল বয়ে আনবে না বলে বিশিষ্টজনরা মনে করেন। তাই জনস্বার্থে বিদেশী নাগরিকদের অন্তর্ভুক্তি স্বাভাবিক ব্যাপার।

বার্তা সংস্থা কিয়োদো সুত্রে জানা যায় সফল ভাবে ভ্যাকসিন নির্মাণের পর বৃটিশ ঔষধ নির্মাতা অ্যাস্ট্রাজেনেকা পিএলসি এবং মার্কিন ফার্মাসিউটিক্যাল ফাইজার ইনকর্পোরেশন প্রত্যেকে ১২০ মিলিয়ন ডোজ ভ্যাকসিন প্রস্তুত করবে তা ছাড়া মর্ডানার কাছ থেকেও ৪০ মিলিয়ন ডোজ বা তার চেয়েও বেশি পরিমাণ ভ্যাকসিন সংগ্রহের চেষ্টা করছে জাপান।

উল্লেখ্য প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী শিনজো আবে গত মার্চ মাসে বিশেষজ্ঞ উপদেষ্টা শিগেরু অমি কে প্রধান করে একটি উপদেষ্টা গঠন করে তাদের পরামর্শ অনুযায়ী জাপানে করোনা মোকাবেলায় বিভিন্ন পদক্ষেপ গ্রহন করেন এবং তার সুফলও পেতে থাকেন।

ছবি – ইন্টারনেট থেকে
rahmanmoni@gmail.com

Leave a Reply