শ্রীনগরে হিন্দু সম্প্রদায়ের ২ গ্রুপে সংঘর্ষ; পূজা কমিটির সভাপতিসহ আহত ১৬

শ্রীনগরে হিন্দু সম্প্রদায়ের ২ গ্রুপের সংঘর্ষে পূজা উদযাপন কমিটির সভাপতিসহ ১৬ জন আহত হয়েছে। সংঘর্ষের সময় ২ গ্রুপেরই বেশ কয়েকজন মাতাল অবস্থায় ছিলেন বলে অভিযোগ উঠেছে। গত ২৫ অক্টোবর রবিবার রাত সাড়ে ১০ টার দিকে উপজেলার দেউলভোগ দাসপাড়া দুর্গা পুজা মন্ডপের ১’শ গজের মধ্যে এঘটনা ঘটে।

স্থানীয়রা জানায়, সংঘর্ষে আহত ১৬ জনকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়। তাদের মধ্যে দেউলভোগ দাসপাড়া দুর্গা পুজা উদযাপন কমিটির সভাপতিসহ ৩ জনকে আশংকাজনক অবস্থায় ঢাকায় প্রেরণ করা হয়।

হাসপাতালে চিকিৎসা নেওয়া বেশ কয়েকজন জানান, ওইদিন রাতে উপজেলার দেউলভোগ দাসপাড়া সার্বজনীন একতা সংঘ পুজামন্ডপ সংগল্ন এলাকায় লাগানো চিরঞ্জিব সাহার সাইন বোর্ডটি দাস পাড়ার লোকজন সরিয়ে দিয়েছে বলে অভিযোগ উঠে। এঘটনাকে কেন্দ্র করে সাহা পাড়ার মিঠুন সাহা, পংকজ, জয়ন্ত সাহা, জয় সাহা, প্রসঞ্জিত, শ্যামল সাহা, নিরঞ্জন, পিয়াস ও বিশ্বজিতসহ আরো অজ্ঞাতনামা ২০/২৫ জন মিলে দাস পাড়ার হৃদয় (২৩), রিন্তু (২০), সৌরভ (১৮), অভয় (১৬) ও সঞ্চয় (১৮) এর ওপর হামলা চালায়। তাদের ডাক চিৎকারে পূজা কমিটির সভাপতি উত্তম দাসসহ প্রীতম, জয়দেব, রবিন, সীমান্ত, দীপ্ত, শিশির, ভাগিনা অভয়, প্রতিবেশী শাওন হোসেন এগিয়ে গেলে মিঠুন বাহিনী তাদেরকেও মারধর করে। মারামারি থামানোর জন্য ঘটনাস্থলে পূজা উদযাপন কমিটির সভাপতি উত্তম দাস উপস্থিত হলে তাকে ঘরের ভিতর আটকে রেখে বেদম মারধর করে।

শ্রীনগর থানার ওসি (তদন্ত) হেলাল উদ্দিন বলেন, সংবাদ পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। তবে এঘটনায় কোন পক্ষ থানায় অভিযোগ করেনি।

গ্রাম নগর বার্তা

Leave a Reply