১ জানুয়ারি থেকে আর গাইবেন না ফেরদৌস ওয়াহিদ!

চলতি বছরের সেপ্টেম্বরে বর্ণাঢ্য সংগীত ক্যারিয়ারের ইতি টানার ঘোষণা দিয়েছিলেন ফেরদৌস ওয়াহিদ। এবার জানালেন দিনক্ষণ। চলতি বছরের ৩১ ডিসেম্বরের পর আর নতুন কোনও গান গাইবেন না। এমনকি উঠবেন না কোনও মঞ্চেও।

বিষয়টি বাংলা ট্রিবিউনকে নিশ্চিত করেছেন ফেরদৌস ওয়াহিদ নিজেই।

আগামী ১০ ডিসেম্বর চ্যানেল আই মিউজিক অ্যাওয়ার্ডে আজীবন সম্মাননা পাওয়ার পরই এ ঘোষণা দেবেন তিনি। তার ছেলে হাবিব ওয়াহিদের সঙ্গে পরামর্শ করেই এমন সিদ্ধান্ত নিয়েছেন বলে জানালেন ফেরদৌস।

তিনি বলেন, ‘‘এই বছরই হবে আমার গানের শেষ বছর। চ্যানেল আই মিউজিক অ্যাওয়ার্ডে আমি উপস্থিত থাকব। সঙ্গে আমার ছেলে হাবিব ওয়াহিদও থাকবে। অনুষ্ঠানে হাবিব আমাকে ট্রিবিউট করে আমার দুটি বিখ্যাত গান গাইবে। এর মধ্যে একটি হলো- ‘আগে যদি জানতাম’, অন্যটি এখনো ঠিক করিনি। আশা করি, শেষটা সুন্দর হবে।’’

ভক্তদের ধন্যবাদ জানিয়ে তিনি বলেন, ‘‘ভক্তদের জন্য আমার কৃতজ্ঞতার শেষ নেই। আজকের ফেরদৌস ওয়াহিদ হতে পেরেছি শুধু তাদের জন্য। তাই ভক্তদের নিরাশ করব না। গান থেকে দূরে থাকলেও আগামীতে তারা আমার কয়েকটি নতুন গান শুনতে পারবেন। আমার ১৫টি বিখ্যাত গান নতুন করে তৈরি করছে হাবিব। পরিকল্পনা আছে, প্রতি মাসে একটি করে এগুলো প্রকাশ করার। বিষয়টি এখন থেকে হাবিবই দেখবে। আর আমি তো আমাদের দেশের অবস্থা জানি। শিল্পীদের শেষ বয়সে ছুঁড়ে ফেলে দেওয়া হয়। আবার আমার নিজের রেঞ্জও আমার জানা। তাই মনে করি, এটাই বিদায় নেওয়ার ভালো সময়।’

তিনি জানান, ১৯৮৬ সালে তার বাবার নামে জনকল্যাণ ট্রাস্ট গঠন করা হয়েছিল। সেখান থেকে অসহায় মানুষের চিকিৎসার জন্য তারা সহায়তা করে থাকেন। যদি সেই ট্রাস্টের কল্যাণে কেউ কনসার্ট আয়োজন করে, তখন হয়তো দায়বদ্ধতা থেকে গাইবেন। নইলে আর কখনোই মঞ্চেও উঠবেন না তিনি।

এদিকে জানা যায়, বিগত কয়েকমাস নিজ এলাকা বিক্রমপুরেরই আছেন ফেরদৌস ওয়াহিদ। মন দিয়েছেন মাছ চাষ ও কৃষিকাজে। মূলত নিজেদের জন্য চাষ করে সময় কাটাচ্ছেন দেশের প্রথম সারির এই পপশিল্পী।

বাংলা ট্রিবিউন

Leave a Reply