আড়িয়াল বিলের উচ্ছে’র বাম্পার ফলন; হাসি নেই কৃষকের মুখে!

আড়িয়াল বিল এলাকার অসংখ্য ভিটায় আগাম উচ্ছে’র বাম্পার ফলন হলেও স্থানীয় কৃষকের মুখে হাসি নেই! কৃষকের উৎপাদিত প্রতি কেজি উচ্ছে বিক্রি করা হচ্ছে ৬ থেকে ৮ টাকা দরে। জমির উচ্ছে তোলা কাজে দিনমজুরের খরচের টাকাও উঠছেনা। হঠাৎ করে উচ্ছে’র বাজার কমে যাওয়ায় এখানকার কৃষকের মুখে হাসি নেই। এচাষে লোকসানের মুখ দেখছেন স্থানীয় কৃষক।

সরেজমিনে দেখা গেছে, বিস্তীর্ণ আড়িয়াল বিল এলাকার মুন্সীগঞ্জের শ্রীনগর উপজেলার শ্যামসিদ্ধি এলাকার গাদিঘাট, সেলামতি, মত্তগ্রাম, টেক্কার বাজার এলাকার কৃষকরা এখানকার ভিটায় ব্যাপক উচ্ছে’র চাষাবাদ করেছেন। ফলনও ভাল হয়েছে। বাজারে বিভিন্ন সবজির দাম কমায় উচ্ছে’র দামও কমেছে অনেকাংশে। এতে করে উচ্ছে বিক্রি করে একজন শ্রমিকের মজুরি পাওয়া যাচ্ছেনা। একারণে অনেকেই জমি থেকে উচ্ছে তুলা থেকে বিরত থাকছেন। লক্ষ্য করা গেছে, রোববার বিকালে গাদিঘাট বাজার সংলগ্ন সেতুর ওপরে স্থানীয় কয়েকজন কৃষক উচ্ছে নিয়ে পাইকারের অপেক্ষায় বসে আছেন। জানা যায়, উচ্ছের দাম না থাকায় পাইকাররাও আসছেনা। এছাড়াও ওই এলাকার সেলামতি বাগবাড়ি, মত্তগ্রামসহ টেক্কার বাজার এলাকায় কৃষকদের উচ্ছে বিক্রির অপেক্ষায় বসে থাকতে দেখা গেছে।

এসময় কৃষক আব্দু রহিম (৬০), হামেদমোল্লা (৫৯), হুমায়ুন মোল্লা, হাদীর শেখ (৫০) বলেন, উচ্ছের বামপার ফলন হলেও দাম নেই। প্রতি কেজি ৬/৮ টাকায় বিক্রি করা হচ্ছে। তাই জমি থেকে ইচ্ছে করেই উচ্ছে তোলছিনা। কারণ হিসেবে তারা জানায়, বিলের ভিটা থেকে এসব উচ্ছে তুলে বিক্রি করা হলেও শ্রমিকের মূল্য পাওয়া যাচ্ছেনা। গাদিঘাটের আব্দুর রহিম বলেন, প্রায় শতাধিক শতাংশ জমিতে আগাম উচ্ছে’র চাষ করেছি। কয়েকদিন আগেও উচ্ছে’র পাইকারী দাম মোটামুটি ভালই পেয়েছি। গত কয়েকদিন যাবত দাম কমায় উচ্ছে’র পাইকাররা ঠিকমত এখানে আসছেনা। এচাষে সব খরচ বাদে লাভের মুখ দেখা যাবেনা। পাইকার আমিনুল ইসলাম বলেন, পাইকারীভাবে প্রতি কেজি ৬ টাকা দরে প্রায় ১৫ মন উচ্ছে কিনছেন তিনি। বাজারে প্রচুর উচ্ছে’র আমদানী থাকায় কম পরিমানে কিনছেন।

খোঁজ খবর নিয়ে জানা যায়, আড়িয়াল বিলের উচ্ছে দেশব্যাপী সুপরিচিত। নানা গুনে ভরপুর সুস্বাদু ফরমালিনমুক্ত ভালমানের এসব উচ্ছে যাচ্ছে ঢাকার কাওরান বাজার, সাভার, শ্যামবাজারসহ বিভিন্ন পাইকারি বাজারে। বর্তমান পাইকারী আড়তে প্রতিকেজি উচ্ছে বিক্রি করছেন ১২/১৪ টাকায়। শ্রীনগরের বিভিন্ন হাটবাজারে এসব উচ্ছে খুচরাভাবে বিক্রি হচ্ছে ২০-৩০ টাকা দরে।

গ্রামনগর বার্তা

Leave a Reply